বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮

বামের হাত ধরে রাম হব না, মমতার প্রস্তাব উড়িয়ে বিস্ফোরক সব্যসাচী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নতুন বিতর্কে জর্জরিত তৃণমূল কংগ্রেস। এতদিন যে বিরোধিতা দলের বাইরে ছিল এবার সেটা এল অন্দরেও। গত বুধবার বিধানসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়েই বিজেপিকে রুখতে বাম ও কংগ্রেসের সমর্থন চান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন সেই প্রসঙ্গেই বিধাননগরের মেয়র তথা রাজারহাট নিউটাউনের বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত বলেন, “আমি বাম কংগ্রেসকে পাশে মোটেই চাইছি না। আমি কংগ্রেস ছিলাম, কংগ্রেস আছি কিন্তু বামের হাত ধরে রাম হওয়ার মানসিকতা আমার নেই।”

বুধবার বিধানসভায় মমতা বলেন, “মান্নান ভাই, সুজন দা চলুন বিজেপি-কে রুখতে আমরা এক সঙ্গে লড়াই করি”। সেই প্রস্তাব অবশ্য পত্রপাঠ খারিজ করে দেয় বাম ও কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতার মাঝেই কংগ্রেস ও বাম বিধায়করা তাঁর আপত্তি করে বুঝিয়ে দেন, এই প্রস্তাবে তাঁদের সায় নেই। ব্যাখা দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমি রাজনৈতিক জোট করার কথা বলিনি। যে ভাবে জাতীয় স্তরে ২৩টি রাজনৈতিক দল লড়াই করছি। সেই ভাবে লড়াইটা চালিয়ে যেতে হবে।”

এনিয়ে নানা আলোচনা রাজনৈতিক মহলে। সেটাই আরও বাড়িয়ে দিলেন সব্যসাচী। শুক্রবার বারাসাত আদালতে এসে সব্যসাচী দত্ত জানান, তিনি কংগ্রেসে ছিলেন কিন্তু তিনি কোনো ভাবেই বামকে পাশে চাইছেন না। বামকে নিয়ে রাম হবেন এমন মানসিকতা তার নেই। অত্যন্ত ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য সব্যসাচী দত্তর। তবে বামকে ছাড়া তিনি রামের দিকে ঝুকবেন কিনা তা তিনি খোলসা করেননি।

কাটমানি প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসা করে তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী সততার প্রতীক হিসাবে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে কিছু তথ্যের ভিত্তিতে তাঁর বক্তব্য জনিয়েছেন। রাজনীতি করে অর্থ উপার্জন করা মূল উদ্দেশ্য নয় বলেই তিনি কাটমানির বিরোধিতা করেছেন। খুব সামান্য বেনো জল দলে ঢুকেছে, যা সমাজের সর্বস্তরে রয়েছে।

ভাটপাড়ায় সুশীল সমাজের বিদ্বজ্জনদের যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি আবেদনের ভঙ্গিতে ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে বলেন, পশ্চিমবঙ্গের যেসব জায়গায় হানাহানি হচ্ছে সর্বত্রই এই সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবর্গ যেন এগিয়ে যান।

Comments are closed.