রবিবার, অক্টোবর ২০

দুই পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও খারাপ হবে, বললেন ইমরান

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত সোমবার সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের প্রস্তাব দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তারপরেই সরব হয়েছে পাকিস্তান। সেদেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, ভারতের এই পদক্ষেপ বেআইনি। এতে দুই পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটবে। পাকিস্তান সরকার থেকে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে, ইমরান খান কাশ্মীর নিয়ে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মহাথির মহম্মদ ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরোদগানের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাঁদের ইমরান বোঝাতে চেষ্টা করছেন, জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে ভারত যা করতে চলেছে, তা বেআইনি। এতে রাষ্ট্রপুঞ্জে গৃহীত প্রস্তাবের অবমাননা করা হয়েছে।

পাকিস্তানের বিদেশ দফতরের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারত যা পদক্ষেপ নিয়েছে, তাতে আমাদের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক আরও খারাপ হবে। মহাথির মহম্মদ বলেছেন, মালয়েশিয়ার সরকার কাশ্মীরের পরিস্থিতির ওপরে নজর রাখছে। বিষয়টি নিয়ে তারা পাকিস্তানের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখবে।

জিও নিউজের খবর অনুযায়ী আগামী মাসে নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভার অধিবেশনের এক ফাঁকে ইমরানের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন মহাথির। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে বলা হয়েছে, ইমরান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরোদগানকে বলেছেন, ভারত বেআইনিভাবে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিতে চায়। এর ফলে আঞ্চলিক শান্তি ও সুস্থিতির গুরুতর ক্ষতি হবে।

ইমরান এদিন বলেন, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ কাশ্মীরিদের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার স্বীকার করে নিয়েছে। আমরা তাদের সংগ্রামে কূটনৈতিক, নৈতিক ও রাজনৈতিক সমর্থন দিয়ে যাব।

পাকিস্তানের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এরোদগানও কাশ্মীর নিয়ে উদ্বিগ্ন। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন, এই ইস্যুতে পাকিস্তানকে সমর্থন করবেন।

পাকিস্তান এর আগেও কাশ্মীর নিয়ে ভারতের পদক্ষেপের বিরোধিতা করে বলেছে, খুব শীঘ্র তাদের দেশে আমেরিকার এক প্রতিনিধি দল আসছে। তাঁদের কাছে কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থান ব্যাখ্যা করা হবে। একইসঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলের সমর্থনও পাওয়ার চেষ্টা করবে ইমরানের সরকার।

Comments are closed.