শুক্রবার, অক্টোবর ১৮

বন্ধ হবে বিএসএনএল, অর্থমন্ত্রক এমনই চায় বলে দাবি সংবাদমাধ্যমে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: খুব তাড়াতাড়ি বন্ধ হয়ে যেতে পারে রাষ্ট্রায়াত্ত টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল ও এমটিএনএল। ধুঁকতে থাকা দুই সংস্থাকে বন্ধ করে দেওয়ার ব্যাপারে অর্থমন্ত্রক চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে বলেছে দাবি করেছে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস।

ওই খবরে দাবি করা হয়েছে, দুই সংস্থা বন্ধ করে দেওয়ার জন্য ৯৫ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে যোগাযোগ মন্ত্রকের। ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ১ লাখ ৬৫ হাজার কর্মীর ভিআরএস এবং সংস্থার বিভিন্ন ঋণ মেটাতে ওই টাকা খরচ হবে।

এই দুই সংস্থায় তিন ধরনের কর্মী রয়েছে। একদল কর্মী রয়েছেন যাঁদের সরাসরি নিয়োগ করেছে বিএসএনএল বা এমটিএনএল। আর এক দল রয়েছেন যাঁরা অন্য কোনও সংস্থা থেকে বদলি হয়ে এসেছেন। তৃতীয় দলে রয়েছেন ইন্ডিয়ান টেলিকমিউনিকেশনস সার্ভিসের (আইটিএস) অফিসাররা। যদি তিন ধরনের কর্মীদের জন্য তিন রকমের প্যাকেজ হয় তবে খরচ ৯৫ হাজার কোটি টাকার কম হতে পারে। কারণ, আইটিএস অফিসারদের অন্য কোনও সরকারি সংস্থায় চাকরি দেওয়া যেতে পারে। সেক্ষেত্রে ভিআরএস-এর খরচ লাগবে না। আর সরাসরি যাদের নেওয়া হয়েছে তারা মূলত জুনিয়র কর্মী এবং বেতনও কম। তাই এক্ষেত্রে ভিআরএস-এর জন্য খুব বেশি অর্থের প্রয়োজন হবে না।

ওই খবরে আরও জানানো হয়েছে যে, ইতিমধ্যেই বিএসএনএল ও এমটিএনএলকে কর্মীদের হিসেব করতে বলা হয়েছে। তার উপরেই নির্ভর করবে দুই সংস্থা বন্ধ করে দিতে কত খরচ হবে কেন্দ্রের।

Comments are closed.