রবিবার, অক্টোবর ২০

হার-না-মানা সেই ডেলিভারি বয়কে ইলেক্ট্রিক বাহন উপহার দিল জ়োম্যাটো, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেট দুনিয়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দিন কয়েক আগেই সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে সামনে এসেছিল তাঁর কথা। দিল্লির এক খাবার ডেলিভারি বয়ের ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল টুইটারে। দেখা গিয়েছিল, বিশেষ ভাবে সক্ষম এক জ়োম্যাটো ডেলিভারি বয় হাঁটতে চলতে পারেন না। কিন্তু তিনি ট্রাই-সাইকেলে চড়ে, সেটি হাত দিয়ে চালিয়ে, বাড়ি বাড়ি খাবার নিয়ে হাজির হচ্ছেন সময়মতো! রামুর এই ভিডিও এক কাস্টমার প্রকাশ করার পরেই তা ভাইরাল হয়ে যায় রীতিমতো প্রশংসায় ফেটে পড়েন নেটিজেনরা। শুধু রামুর নয়, সকলেই জ়োম্যাটোরও প্রশংসা করেন।

সেই জ়োম্যাটোই এবার আরও এক বার কুড়িয়ে নিল নেটিজেনদের ঢালাও প্রশংসা। জানা গিয়েছে, রামু সাহু নামের ওই ডেলিভারি বয়কে ইলেক্ট্রিক্যাল ট্রাইসাইকেল কিনে দেওয়া হয়েছে কর্তৃপক্ষের তরফে। উপহার পেয়ে বেজায় খুশি রামু।

জ়োম্যাটোর কর্ণধার দীপিন্দর গয়াল টুইট করে জানান, রামুর কাজ ও কাজের চেষ্টা প্রশংসাতীত। শারীরিক বাধাকে জয় করে তিনি যে ভাবে স্বনির্ভর হতে চাইছেন, তাতেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে জোম্যাটো।

দেখুন সেই টুইট।

নেটিজেনরা বলছেন, ইচ্ছা থাকলেই যে উপায় হয়, তা আরও এক বার প্রমাণ করলেন রামু সাহু। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা কখনওই জীবনকে থামিয়ে দেয় না, যদি মানসিক জোর পর্যাপ্ত থাকে। রামু তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ। কয়েক দিন আগেই হানি গয়াল নামের এক কাস্টমার ট্রাইসাইকেলে করে খাবার দিতে আসা রামুর ভিডিও পোস্ট করেছিলেন টুইটারে। তিনি লিখেছিলেন, “যাঁরা ভাবছেন জীবনটা শেষ হয়ে গেছে, তাঁদের জন্য এই মানুষটি দৃষ্টান্ত।” জ়োম্যাটোর প্রশংসাও করেছিলেন তিনি।

দেখুন তাঁর সেই টুইট।

এক জন বিশেষ ভাবে সক্ষম ব্যক্তির রুজি রোজগারের ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য নেটিজেনরা অভিনন্দন জানিয়েছিলেন জ়োম্যাটোকে। অনুপ্রেরণার উদাহরণ হিসেবে বহু মানুষ শেয়ার করেছিলেন রামুর ভিডিও।

এমনকী ওই ভিডিও-র থ্রেডে জ়োম্যাটোর তরফেও ধন্যবাদ জানানো হয়েছিল। বলা হয়েছিল, তারাও এমন এক জন কর্মচারী পেয়ে গর্বিত। সব বাধা অতিক্রম করে তারাও এই ভাবেই খাবার ডেলিভারি দেওয়ার অঙ্গীকার করেছিল। এই বার সেই জ়োম্যাটো শুধু অঙ্গীকার নয়, রামুকে সুবিধাজনক বাহন উপহার দিয়ে আরও বেশি করে তাঁর পাশে দাঁড়ানোয় দ্বিগুণ খুশি নেটিজেনরা।

জ়োম্যাটোর কর্ণধার দীপিন্দর গয়াল আরও একটি টুইট করে দেখান, কী ভাবে নতুন বাহনটি নিয়ে রাস্তায় ট্রায়াল দিচ্ছেন রামু।

দেখুন ভিডিও।

কয়েক মাস আগেই একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরে ছিছিক্কার পড়ে গিয়েছিল এই জ়োম্যাটোর বিরুদ্ধেই। দেখা গিয়েছিল, তাদের এক ডেলিভারি বয় ডেলিভারির খাবার বাক্স থেকে খাবার বার করে খাচ্ছেন। এই ভিডিও দেখে বিতর্কে ফেটে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়া। কাঠগড়ায় ওঠে জ়োম্যাটোর পেশাদারিত্ব।

শুধু তা-ই নয়। এর আগেও কখনও তাদের খাবারে মিলেছে প্লাস্টিকের টুকরো, কখনও আবার আরশোলা! এ রকমই নানা অভিযোগ ও বিতর্কে বারবার সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছে জ়োম্যাটোর নাম। বারবার প্রশ্ন উঠেছে সংস্থার গা-ছাড়া মনোভাব নিয়ে। সন্দেহের মুখে পড়েছে তাদের বিশ্বাসযোগ্যতা।

সে সব কিছুকে যেন ধুয়েমুছে সাফ করে দিল রামু সাহুর এই ঘটনা। মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এই উদাহরণ, জ়োম্যাটোর নতুন এক ভাবমূর্তি তৈরি করল সাধারণ মানুষের কাছে।

আরও পড়ুন…

শরীরে বাধা, মনে নয়! তাই তিন-চাকার সাইকেলে খাবার পৌঁছনোর কাজ, কুর্নিশ জানাচ্ছে নেট-দুনিয়া

Comments are closed.