শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০

শোভনের বিজেপি-যাত্রা দেখে হাসলেন রত্না, দুষলেন বৈশাখীকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যত দোষ বৈশাখীর। শোভনের বিজেপিতে যোগ দেওয়ার দিনে এমনটাই বললেন প্রাক্তন মেয়রের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়। বুধবার বিকেলে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায় যখন দিল্লিতে বিজেপি সদর দফতরে তখন বেহালার বাড়িতে দুই সন্তানকে নিয়ে টিভির সামনে বসে ছিলেন রত্না। দেখেন গোটা যোগদান অনুষ্ঠান। আর গোটা সময়টাই মিটি মিটি হাসলেন।

কেন এমন হাসি? এমন প্রশ্নের উত্তরে দ্য ওয়ালকে রত্না বলেন, “রাজনৈতিক উত্থানের সবটা দেখেছি। শুরু থেকে দেখেছি। আজ পতনের সূচনাটা দেখলাম। যেদিন মাটিতে পরবে সেদিনটাও দেখার অপেক্ষায় রইলাম।” এদিন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে বলতে বারবার বৈশাখীকে আক্রমণ করেন রত্না। তিনি বলেন, নিজের স্ত্রী, সন্তানকে ফেলে অন্য মহিলের সঙ্গে থাকেন এমন একজনকে বিজেপি দলে নিয়ে খুব সুবিধা করতে পারবে না। আর এটাও বিজেপির জন্য লজ্জার যে এমন একজন মহিলাকে তারা দলে নিল যে অনেক পরিবার ভেঙেছে।

অতীতে অনেকবারই বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। বারবার বলেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের পতনের জন্য, তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে দূরত্ব তৈরির জন্য অনেকাংশেই দায়ী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনও তিনি বলেন, শোভন যতদিন নিজের পরিবারের সঙ্গে ছিলেন ততদিন তাঁর বিজেপিতে যাওয়ার মতো অবস্থা হয়নি। এখন ঘর ছেড়ে পরের সঙ্গে থাকতে শুরু করাতেই এই অধঃপতন।

এদিন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের যোগদানের পরে বিজেপি নেতা মুকুল রায় আগামী পুরসভা নির্বাচনে কলকাতা দখলের কথা বলেন। সেই প্রসঙ্গে রত্না বলেন, এটা বিজেপির দিবাস্বপ্ন। শোভন চট্টোপাধ্যায়কে দেখে কেউ তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দেয় না। ভোট দেয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে।

Comments are closed.