বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

ছাড় নেই চিদম্বরমকে, ছাড়া পাবেন না বাংলার নেতারাও, দিলীপের মন্তব্যে কড়া সুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিপাকে চিদম্বরম। দিল্লি হাইকোর্টে জামিনের আবেদন নাকচ হয়ে যাওয়ায় যে কোনও মুহূর্তেই গ্রেফতার হয়ে যেতে পারেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। এদিন চিদম্বরমের আগাম জামিন খারিজ হতেই তাঁর দিল্লির বাসভবনে পৌঁছে যায় সিবিআই অফিসারদের একটি টিম। যদিও জোরবাগের ওই বাড়িতে চিদম্বরম তখন ছিলেন না। ফলে কিছুক্ষণ থাকার পরে সিবিআই অফিসাররা বেরিয়ে যান। কিন্তু তাঁরা বেরিয়ে যাওয়ার পরেই চিদম্বরমের বাসভবনে পৌঁছে যায় ইডি অফিসারদের একটি টিম।

একটা বিষয় স্পষ্ট যে এই মামলাকে আর সহজ করে দেখছে না সিবিআই। কড়া পদক্ষেপের পথেই হাঁটতে চাইছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। একই সঙ্গে কেন্দ্রের মোদী সরকারের দৃষ্টিভঙ্গিও স্পষ্ট। দুর্নীতি মামলায় দেশের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকেও ছাড় দিতে রাজি নয় কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে ভয় বাড়ছে বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত দেশের অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদেরও। আর সেই তালিকায় অবশ্যই রয়েছেন এই রাজ্যের অনেক রাঘববোয়াল।

বিভিন্ন চিটফান্ড মামলা কিংবা নারদ স্টিং অপরেশন মামলায় বাংলার অনেক রাজনীতিকেরই নাম জড়িয়েছে। শুধু রাজনীতিকরাই নয় চলচ্চিত্র থেকে ক্রীড়া জগৎ সমাজের নানা ক্ষেত্রের প্রতিষ্ঠিতরা অভিযুক্ত। সম্প্রতি সেই সব মামলা নিয়ে সিবিআইয়ের তৎপরতাও বেড়েছে। অতীতে তৃণমূল কংগ্রেসের মন্ত্রী, সাংসদদের জেলও খাটতে হয়েছে এইসব মামলায়। এখন আবার সেই ভয় বাড়ছে। আর এই প্রসঙ্গেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, “কেউ ছাড় পাবেন না। অভিযুক্তদের সবাইকেই তদন্তের মুখোমুখি হতে হবে। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার গোয়েন্দা সংস্থার উপরে নিয়ন্ত্রণে বিশ্বাসী নয়। তাই অভিযুক্তদের রং না দেখে তদন্ত হবে।”

চিটফান্ড তদন্ত প্রসঙ্গে দিলীপ আরও বলেন, “কেউ আইনের উর্দ্ধে নন। তিনি কেন্দ্রের প্রাক্তন মন্ত্রী‌ই হন কিংবা বড় নেতা। বিজেপি সরকারের আমলে কোনও দুর্নীতিবাজেরই সুসময় আসবে না। এই রাজ্যে এখনই কোনও নেতার বাড়িতে সিবিআই হানার মতো অবস্থা হয়নি কিন্তু জেরা চলছে। আর সেটা চলা উচিত।”

চিটফান্ড কিংবা নারদ কাণ্ডে অভিযুক্তদের অনেকেই এখন বিজেপিতে। তাঁদের কী হবে? এমন প্রশ্নের উত্তরে দিলীপ ঘোষ এদিন বলেন, “দুর্নীতির কোনও রং হয় না। কে দোষী, কে নয় সেটা তদন্তের পরে জানা যাবে। কিন্তু যাঁরা অভিযুক্ত তাঁদের সবাইকেই তদন্তের মুখোমুখি হতে হবে। যত তদন্ত এগোবে, তত তথ্য সামনে আসবে।”

এখন আইএনএক্স মিডিয়া মামলা নিয়ে সরগরম রাজনৈতিক মহল। পি চিদম্বরমের বাড়িতে সিবিআই, ইডি হানা নানা জল্পনা তৈরি করছে। তারই মধ্যে বঙ্গ রাজনীতির জল্পনাও উস্কে গেল দিলীপ ঘোষের এদিনের মন্তব্যে।

Comments are closed.