বুধবার, অক্টোবর ১৬

ডিম আর দুধের জন্যই শহরে মুদ্রাস্ফীতির হার বাড়ছে, বললেন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ডিম আর দুধের জন্যই শহরে মুদ্রাস্ফীতির হার বাড়ছে বলে জানালেন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস।

এ দিন একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শক্তিকান্ত দাস বলেন, গ্রামের মানুষ দুধ বেশি কেনেন না। শহরের মানুষ কেনেন। ইদানীং সব রাজ্যেই দুধ আর ডিমের দাম কম বেশি বেড়েছে। তার ফলেই মুদ্রাস্ফীতির হার বেড়েছে।

অর্থনৈতিক মন্দা গ্রাস সত্ত্বেও মুদ্রাস্ফীতির হার যে লাগামছাড়া হয়েছে তা অবশ্য নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, তা এখনও সহনশীল সীমার মধ্যে রয়েছে। তবে জুলাই মাসের তুলনায় অগস্ট মাসে মুদ্রাস্ফীতির হার সামান্য হলেও বেড়েছে।

জুন মাসে মুদ্রাস্ফীতির হার ছিল ৩.১৫ শতাংশ। তা বেড়ে অগস্টে ৩.২১ শতাংশ হয়েছে। তবে দেখা যাচ্ছে শহরে মুদ্রাস্ফীতির হার বেশি ৪.৪৯ শতাংশ। আর গ্রামে তা হল ২.১৮ শতাংশ।

মজার ব্যাপার হল, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর ডিম আর দুধকে শহরের মুদ্রাস্ফীতির কারণ হিসেবে দায়ী করেছেন ঠিকই। কিন্তু কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান মন্ত্রকের দেওয়া হিসেব বলছে, শাক সবজির দাম ৬.৯০ শতাংশ। সেই তুলনায় দুধ এবং দুগ্ধজাত দ্রব্যের দাম বেড়েছে ১.৪০ শতাংশ হারে। এ ছাড়া মশলাপাতি এবং ডালের দাম ৬.৯৪ শতাংশ হারে বেড়েছে।

তবে দাম অনেকটাই কমেছে মাংস ও মাছের। মোটামুটি ভাবে ৮.১৫ শতাংশ হারে কমেছে।

এ দিকে গত সপ্তাহে আইএমএফ বলেছিল, ভারতের অর্থনৈতিক বিকাশ যতদূর হবে ভাবা গিয়েছিল, বাস্তবে হচ্ছে তার চেয়ে কম। কার্যত আইএমএফের সঙ্গে সুর মিলিয়ে এ দিন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাসও বললেন, যা ভাবা গিয়েছিল, সেইমতো অর্থনীতির বিকাশ হচ্ছে না। তাঁর মতে, সুদ কমিয়ে চাহিদা বাড়াতে হবে।

এ ব্যাপারে বিশদে জানতে আরও পড়ুন…

অর্থনীতির যা বিকাশ হবে ভাবা হয়েছিল, বাস্তবে অবস্থা তার চেয়েও খারাপ : রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর

Comments are closed.