মঙ্গলবার, মার্চ ১৯

দেশ জুড়ে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে, প্রথম ভাষণেই মোদীকে আক্রমণ প্রিয়ঙ্কার

দ্য ওয়াল ব্যুরো : মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নিজের রাজ্য গুজরাতে জনসভা করলেন সদ্য রাজনীতিতে পা দেওয়া প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা লোকসভা ভোটে পূর্ব উত্তরপ্রদেশে দলের সংগঠন দেখাশোনার দায়িত্ব পেয়েছেন। এদিন তিনি আমেদাবাদে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে তিনি যোগ দেন। তারপর জনসভা করেন। এর আগে উত্তরপ্রদেশের বাইরে আর কোথাও তিনি জনসভা করেননি। এদিন তিনি একবারও মোদীর নাম নেননি। কিন্তু পুরো ভাষণে মোদীরই সমালোচনা করেছেন। তাঁর বক্তব্য, দেশ জুড়ে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে।

উপস্থিত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের ভোটই আপনাদের অস্ত্র। সঠিক সিদ্ধান্ত নিন। সঠিক প্রশ্ন করুন। তাঁর মতে, এবার এপ্রিল-মে মাসে যে সাধারণ নির্বাচন হতে চলেছে, তার গুরুত্ব স্বাধীনতা সংগ্রামের চেয়ে কম নয়। ভোটারদের কাছে তাঁর আবেদন, সবদিক ভেবে সিদ্ধান্ত নিন। যারা আপনাদের কাছে বড় বড় কথা বলে, তাদের চিনুন। তারা তো প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বেকারদের চাকরি দেবে। কোথায় গেল সেই চাকরি? তারা বলেছিল, সকলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৫ লক্ষ টাকা করে জমা পড়বে। কোথায় সেই টাকা? তারা বলেছিল, মহিলাদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে। কোথায় নিরাপত্তা?

প্রিয়ঙ্কা যে মঞ্চে ভাষণ দিছিলেন, তার কাছেই ছিল প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর ছবি। প্রিয়ঙ্কার সঙ্গে প্রয়াত ইন্দিরার মিল শ্রোতাদের নজর এড়ায়নি।

কিছুদিন আগে আমেদাবাদে এক জনসভায় মোদী বলেছিলেন, চুন চুন কে হিসাব লেনা মেরা ফিতরত হ্যায়। অর্থাৎ প্রতিটি অন্যায়ের প্রতিশোধ নেওয়াই আমার স্বভাব। তার কিছুদিন আগেই পাকিস্তানে ঢুকে বালাকোটে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ শিবিরে ভারতের বায়ুসেনা বোমাবর্ষণ করে। পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হানার বদলা নিতেই ওই অভিযান করা হয়েছিল।

এদিন প্রিয়ঙ্কা বলেন, অনেকে ফিতরতের কথা বলে। আমাদের দেশের ফিতরত হল সত্যের অনুসন্ধান করা। জাতির ফিতরত হল ভালোবাসা দিয়ে ঘৃণাকে পরাস্ত করা।

বিজেপির নাম না করে তিনি বলেন, আগামী দু’মাসে ‘ওরা’ সব রকমের ইস্যু তুলবে। আপনারা সঠিক প্রশ্ন করুন। এদেশ আপনাদের। এই দেশকে আপনাদেরই পাহারা দিতে হবে। তাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

এদিনের জনসভায় প্রিয়ঙ্কা ছিলেন তারকা বক্তা। ভাষণের শেষে তিনি বলেন, আমাদের জাতির ভিত্তিই হল প্রেম ও ভ্রাতৃত্ব। এখন আমাদের দেশে যা ঘটছে, তা দুঃখজনক। সচেতনতাই সবচেয়ে বড় দেশপ্রেম। সচেতনতাই আপনাদের অস্ত্র। আপনাদের ভোট একটি অস্ত্র। এটা এমন এক অস্ত্র যা কারও ক্ষতি করে না। কিন্তু আপনাদের করে তোলে শক্তিশালী।

Shares

Comments are closed.