বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯

আমিও যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছি, মি টু প্রসঙ্গে প্রিয়ঙ্কা চোপড়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ‘মি টু’ আন্দোলন নিয়ে বলতে গিয়ে বিস্ফোরক অভিনেত্রী প্রিয়ঙ্কা চোপড়া। তিনি জানালেন, জীবনের এক পর্যায়ে যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে তাঁকেও।

উইমেন ইন ওয়ার্ল্ড সামিট নামে এক অনুষ্ঠানে ‘মি টু’ নিয়ে অভিনেত্রীকে প্রশ্ন করা হয়। তিনি বলেন, মেয়েদের যৌন হেনস্থা করা তো একরকম নিয়মই হয়ে গিয়েছে। তবে এখন পরিস্থিতি বদলাচ্ছে। মেয়েরা পরস্পরের সাহায্যে এগিয়ে আসছেন। এখন মেয়েরা আর তাদের হেনস্থার কথা প্রকাশ্যে জানাতে লজ্জা পায় না। ভয়ও পায় না।

তাঁর কথায়, আগে আমরা বললে কেউ শুনত না। এখন যেহেতু আমরা পরস্পরকে সাহায্য করি, কেউ আমাদের চুপ করিয়ে দিতে পারে না। এর ফলে সমাজে একটা প্রচণ্ড শক্তি সৃষ্টি হয়েছে। আমার জীবনে যদি কোনও দুঃখের কাহিনি থাকে, তার জন্য আমি লজ্জিত নই। আমি জানি, আমার পাশে আরও অনেকে আছে।

প্রিয়ঙ্কাকে প্রশ্ন করা হয়, আপনি কি কখনও যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন? তিনি বলেন, এই ঘরে যতজন মহিলা আছেন, সবাই সম্ভবত একবার না একবার যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন। এখন তো এটা নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কিছুদিন আগে অভিনেত্রী ফতিমা সানা শেখ জানিয়েছেন, তিনিও যৌন হেনস্থার শিকার। যদিও এসম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলেননি। তবে বলেছেন, বহুদিন আগে তাঁর জীবনে এমন ঘটনা ঘটেছিল।

তাঁর কথায়, আমারও এমন একটা ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা আছে। আমার মনে হয়, মানুষ যদি মি টু আন্দোলনকে যদি কেবল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ব্যাপার ভাবে, তাহলে ভুল করবে। সব চাকরিতেই এমন হয়। আমার জীবনে যখন এমন ঘটেছিল, তখন আমি খুবই ছোট। অনেকে ভাবে, অল্পদিন আগে আমার এই অভিজ্ঞতা হয়েছে। তারা ভাবে, আমি বিস্তারিত বলছি না কেন? আমাদের দেশের প্রত্যেক মহিলাই এই অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন। আমি নিশ্চিত, তাঁদের সকলে একথা প্রকাশ্যে বলতে চান না।

ভারতে ‘মি টু’ আন্দোলনে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বেশ কয়েকজন বিখ্যাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। তাঁদের মধ্যে আছেন প্রবীণ অভিনেতা, পরিচালক এবং গায়ক।

Comments are closed.