বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১
TheWall
TheWall

ইন্দ্রদেবের যজ্ঞ করলেই দিল্লির দূষণ দূর হবে, পরামর্শ বিজেপির মন্ত্রীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দিল্লির দূষণ নিয়ে চিন্তিত গোটা দেশ। ধোঁয়াশায় ঢাকা রাজধানীর ছবি জনমানসে তৈরি করেছে আতঙ্ক। এমনকি জার্মান চ্যান্সেলর ভারত সফরে এসেও দিল্লির অবস্থা দেখে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এই পরিস্থিতিতে দূষণ দূর করার সহজ উপয়ায় বলে দিলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারের মন্ত্রী সুনীল ভারালা। তিনি জানিয়েছেন, ‘‘নাড়া পোড়ানোর ফলে দূষণ হচ্ছে। অথচ বহু বছর ধরে চাষিরা এভাবেই নাড়া পুড়িয়ে আসছেন। এটাই প্রথা। এ নিয়ে প্রশ্ন তোলা ঠিক নয়। তার পরিবর্তে সরকারের উচিত ইন্দ্রদেবকে তুষ্ট করার জন্য যজ্ঞ করা। তিনিই সব কিছু ঠিক করে দেবেন।’’

দিল্লি, গুরুগ্রাম এবং নয়ডার মানুষজনের অভিযোগ, বৃষ্টিতে লাভের লাভ কিছুই হচ্ছে না। শ্বাস নিতে যথেষ্ট বেগ পেতে হচ্ছে। জ্বালা করছে চোখ। পঞ্জাব ও হরিয়ানায় চাষিরা খড় পোড়ানো বন্ধ করেননি। সেই ধোঁয়া উড়ে আসছে দিল্লিতে। তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, যারা খড় পোড়াবে তাদের জরিমানা দিতে হবে। আইনি ব্যবস্থাও নেওয়া হবে। তবে তাতে খড় পোড়ানো বন্ধ হয়নি। বরং তাকে সমর্থন করছেন সুনীল ভারালার মতো কিছু রাজনীতিবিদ। তাঁর স্পষ্ট কথা, ইন্দ্রদেবের যজ্ঞ করলেই দূর হয়ে যাবে দূষণ।

আজ থেকে ফের গাড়ি চয়ালচলে জোড়-বিজোড় প্রক্রিয়া চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেজরিওয়াল সরকার। কিন্তু, তাতেও সমস্যা মিটবে বলে মনে করছেন না বিশেষজ্ঞরা। কারণ, দিল্লির দূষণের মূল দুটি কারণের একটি হল পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকদের এই খড় পোড়ানো। পর্যবেক্ষকদের মতে, দিল্লিতে বাতাসে যে বিঁষ ছড়িয়েছে তাঁর ২৭ শতাংশের দায় পাঞ্জাব ও হরিয়ানার খড় পোড়ানো। দুই,  যানবাহনের ধোঁয়া। প্রায় ১৫ লক্ষ গাড়ি চলে প্রতিদিন। বিশেষজ্ঞদের সাফ কথা, খড় পোড়ানো বন্ধ করতে হবে। কিন্তু সেসব উড়িয়ে দিয়েছেন যোগী-মন্ত্রিসভার এই সদস্য।

Comments are closed.