‘ধর্ষণের মজা লুটতে চাই’, প্রতিবাদ করতে গিয়ে বিপাকে কবি মন্দাক্রান্তা, সমালোচনার ঝড়

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হায়দরাবাদের এনকাউন্টার ঠিক না ভুল?

এই প্রশ্নে এখন আড়াআড়ি বিভক্ত জনতা। আর তা নিয়েই নিজের অবস্থান জানাতে গিয়ে, ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে বিপাকে কবি মন্দাক্রান্তা সেন। বামপন্থী বুদ্ধিজীবী হিসেবে পরিচিত মন্দাক্রান্তার বিরুদ্ধে সমালোচনায় সরব নেটিজেনরা। এমনকি বহু বামপন্থী কর্মী-সমর্থকও ‘হাতুড়ি-কলম-কাস্তে’র লেখিকার বিরুদ্ধে খড়্গহস্তে নেমেছেন।

শনিবার ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন মন্দাক্রান্তা। সেখানে একাধিক পুরস্কার পাওয়া এই কবি মূলত এনকাউন্টারের পক্ষে অবস্থান নেন। একটি অনুষ্ঠানে তাঁর সঙ্গে এক মানবাধিকার কর্মীর কী কথা হয়েছে তা-ই তুলে ধরেন নিজের পোস্টে। নিজের কথা বলতে গিয়ে এবং ধর্ষণের বীভৎসতার প্রতিবাদ করতে গিয়ে নিয়মিত বামেদের মিছিলে হাঁটা মন্দাক্রান্তা লেখেন, “এক স্বনামধন্য মানবাধিকার কর্মীর হিংস্র মৃত্যু দণ্ড বিরোধিতার কথা জানি। অনুষ্ঠানের পর তাঁকে জিজ্ঞেস করলাম, আপনার মেয়ের সঙ্গে এমনটা হলে আপনি কি ধর্ষক ও হত্যাকারীর মৃত্যুদণ্ড চাইতেন না? তিনি ভয়ানক উত্তেজিত হয়ে বললেন, না চাইতাম না। চাইলে আমি আমার পথ থেকে বিচ্যুত হতাম।” এরপরেই মন্দাক্রান্তা লেখেন, “আমি একদিনের জন্য পুরুষ হতে চাই। আপনার কন্যাকে ধর্ষণের বীভৎস মজা লুটে নিতে চাই। নিয়ে মেরে দিতে চাই। আমার মৃত্যুদণ্ড হলে জানি আপনি আমার হয়ে লড়বেন।”

আরও পড়ুন: মালদায় তরুণীর পোড়া দেহ উদ্ধার তদন্তে এখনও আঁধার, নীল স্কুটি নিয়ে জল্পনা

সমালোচনার আঁচ পেতেই ফেসবুক থেকে পোস্ট মুছে দেন কবি। পরে ক্ষমাও চান। এদিন দ্য ওয়াল-এর তরফে মন্দাক্রান্তা সেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “আমি ক্ষমা চেয়েছি। কিন্তু আমি এখনও মনে করি না আমি ভুল বলেছি।” তবে তাৎক্ষণিক ভাবে ক্রোধের বশেই যে তিনি তা বলেছিলেন, তা স্বীকার করে নেন মন্দাক্রান্তা। একই সঙ্গে যাঁরা সসমালোচনা করছেন তাঁদের উদ্দেশে তাঁর বক্তব্য, “ক্ষমা চাওয়ার পরও বলা হচ্ছে আমি ন্যাকামি করছি। এটা কি অসহিষ্ণুতা নয়? আমাকে কি তাহলে ধর্ষিতা হতে হবে?”

মন্দাক্রান্তা আরও বলেন, “আমি আমার সহযোদ্ধাদের বলব, আপনারা আমার উপলব্ধিটা বুঝলেন না?” তাঁর কথায়, “অনেকেই বলছেন তাঁরা মৃত্যুদণ্ডের পক্ষে নন। আমি তাঁদের সঙ্গে একমত নই। কিন্তু সেটা যদি নাও হয়, আমি চাই ধর্ষণের সাজা অঙ্গচ্ছেদ হোক।”

আরও পড়ুন: ধর্ষণ হোক, তার পরে দেখা যাবে! তিন মাস ধরে পুলিশের কাছে এমনটাই শুনছেন উন্নাওয়ের অন্য এক নিগৃহীতা

অন্যদিকে মন্দাক্রান্তাকে সমালোচনায় বিঁধতে গিয়ে অনেক বাম সমর্থককেই দেখা গিয়েছে মাত্রা ছাড়াতে। এ ব্যাপারে অনেক বাম নেতা ঘরোয়া আলোচনায় বলতে শুরু করেছেন, যা শুরু হয়েছে তাতে মন্দাক্রান্তা না সক্রিয় রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। যদিও তা উড়িয়ে দিয়েছেন কবি। তিনি বলেন, “বামপন্থা আমার মজ্জাগত। এটা হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।”

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More