সোমবার, নভেম্বর ১৮

 নিছকই ধর্মীয়

কৃতী রায়

 

 

 

 

ঠিক যে দেশের মানচিত্রে

মৌনমিছিল থমকে দাঁড়ায়!

মোমবাতিরা জ্বলবে পুজোয়

ক্রিসমাসে বা ঈদের পাড়ায়…

 

তেমন দেশের স্বপ্ন দেখি

মধ্যবিত্ত কল্পনাতে…

দুয়ারগুলো থাকবে ধোয়া,

শান্তিদূতের আল্পনাতে…

 

দর্জিমিঞা বুনছে কাপড়,

জাফরি কাটা উমার শাড়ি…

বিসমিল্লার বিভোর সানাই,

নহবতে; হিন্দু বাড়ির…

 

নজরুল তার কলম সুতোয়

বীণাপাণির বস্ত্র বোনান…

মেটিয়াব্রুজে দাঁড়িয়ে রবি,

‘মুসলমানির গল্প’ শোনান…

 

ধর্ম দিয়ে কিছু মানুষ

চিরকালই ফায়দা লোটে…

এবার তাদের হারিয়ে দেখাও,

ভালো থাকার মৈত্রী জোটে!

 

মানুষ শুধু নামেই চিনুক,

ভালোবাসার বাড়ুক ওজন!

রক্ত দিতে গ্রুপই লাগে,

পদবীটা নিষ্প্রয়োজন।

 

জেসাস ঠাকুর আল্লা এসে

বিভেদ গুলো দেননি খুঁজে…

দু’হাত তুমি ছড়িয়ে দেখো,

জড়িয়ে ধরা খুব সহজই…!

 

ম্যানিপুলেট যুদ্ধ গুলো

ভাসিয়ে দেবো উড়ো খইয়ে…

বিভাজনের দাগগুলো স্রেফ

আটকে থাকুক ভূগোল বইয়ে!

 

ঠিক সে দেশের মানচিত্র

খুব দূরে না;আস্থা রেখো…

“রিলিজিয়ন” কলামটাতে

কালকে থেকে ‘মানুষ’ লিখো!

 

Leave A Reply