সোমবার, আগস্ট ১৯

তাড়াতাড়ি মিটবে এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের সমস্যা, দাবি পূরণ হবে মাদ্রাসা শিক্ষকদেরও: পার্থ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তাঁরা পাশ করেছেন, কিন্তু চাকরি পাননি। এমনকী জানতেও পারেননি, তাঁদের প্রাপ্ত নম্বর অনুসারে প্যানেলে তাঁদের নাম আছে কি না। তাই অনশনে বসেছিলেন কলকাতা প্রেস ক্লাবের সামনে। এসএসসির চাকরিপ্রার্থীদের এই সমস্যা তাড়াতাড়িই সমাধান করা হবে বলে ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। একই ভাবে মাদ্রাসার শিক্ষকদের বেতন না বাড়া ও সরকারি সুযোগ-সুবিধা না পাওয়ার দাবিও দু’চার দিনের মধ্যেই খতিয়ে দেখার উদ্যোগ নেবে রাজ্য।

সোমবার এমনটাই বললেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, স্কুলে স্কুলে কম্পিউটার শিক্ষক নিয়োগ করে যে এজেন্সি, তাদের লাভ কমিয়ে সাম্মানিক বাড়ানোর কথা বলা হবে। কারন ওই শিক্ষকদের নিয়োগ করেছে ওই সংস্থা। প্রাথমিক শিক্ষকদের দাবিদাওয়ার বৈষম্য নিয়ে শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন পার্থ। তিনি আরও জানান, শুধু স্কুলের নিয়োগই নয়। কলেজের গেস্ট লেকচারার হিসেবেও তাঁদের ইউজিসি-র যোগ্যতা দেখে নেওয়া হবে। তার পরে কলেজের সঙ্গেও কথা বলা হবে। অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এই কাজগুলো করা হবে বলে জানালেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

এসএসসি পরীক্ষা দিয়েও বেশ কয়েক বছর ধরে কাজে নিয়োগ না হওয়া নিয়ে বহু বার রাজ্য সরকারের দ্বারস্থ হয়েছিলেন চাকরিপ্রার্থীরা। কিন্তু বারবার আবেদন করেও কোনও আশ্বাস না পাওয়ায়, এপ্রিল মাসে প্রেস ক্লাবের সামনে অনশন শুরু করেন তাঁরা। অভিযোগ তোলেন, নিয়োগে অস্বচ্ছতা রয়েছে। কম নম্বর পেয়েও অনেকে অগ্রাধিকার পেয়ে যাচ্ছেন।

তাঁদের অনশনের ২৮ দিনের মাথায় মুখ্যমন্ত্রী নিজে এসে আশ্বাস দেন, নির্বাচনের পরে, জুন মাসে তাঁদের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। জুন মাসও পেরিয়ে গেল, ফের তদ্বির শুরু করেছেন আন্দোলনকারীরা। তাঁদের আশ্বাস দিয়েই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নিয়োগ-জট কাটানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

Comments are closed.