বৃহস্পতিবার, জুন ২৭

তাড়াতাড়ি শেষ হোক হিন্দু হস্টেল সংস্কার, অনুরাধাকে ফোন পার্থর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হিন্দু হস্টেল খুলে দেওয়ার দাবিতে অবস্থান-বিক্ষোভে অনড় প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। কর্তৃপক্ষ সময় চাইলেও তা মানতে নারাজ তাঁরা। এই অবস্থায় শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় পরামর্শ দিলেন, বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিতে দেখা হোক। এ নিয়ে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়ার সঙ্গে ফোনে কথাও বলেন ‌তিনি। স্বীকার করেন, কাজে দেরি বলেই পড়ুয়ারা অধৈর্য হয়ে পড়েছে। তবে প্রেসিডেন্সির মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লোটা–কম্বল নিয়ে আন্দোলন করার পন্থা নিয়েও ছাত্রদের ভেবে দেখতে বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

পার্থ বলেন, “সময়ে হস্টেল সংস্কারের কাজ শেষ হলে এই অসন্তোষ তৈরি হত না। কর্তৃপক্ষের উচিত ছিল সংস্কারের কাজে নিয়ে গোড়া থেকেই তৎপর হওয়া। কাজে দেরি হচ্ছে বলেই পড়ুয়ারা অধৈর্য হচ্ছে। হিন্দু হস্টেল একটি গর্বের বিষয়। তা নিয়ে প্রেসিডেন্সির মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্ররা লোটা–কম্বল নিয়ে আন্দোলন করছে, এতে প্রতিষ্ঠানটির সুনাম এবং গর্বে ধাক্কা লাগছে। আশা করি ছাত্ররা এটা বুঝবে। এখন কাজটি যাতে দ্রুত শেষ হয় কর্তৃপক্ষের উচিত তা দেখা।”

শুক্রবার রাত থেকে নিউ টাউনের হস্টেল ছেড়ে ক্যাম্পাসে এসে থাকতে শুরু করেছেন প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের করিডর–‌সহ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে–‌ছিটিয়ে রয়েছেন তাঁরা। সকালে বিছানা গুটিয়ে ক্লাস করতে যাচ্ছেন। জামা–কাপড়, গামছা কেচে বিশ্ববিদ্যালয়েই শুকোতে দিচ্ছেন।

ইতিমধ্যেই অবস্থানরত ছাত্রদের সঙ্গে কথা বলেন উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া। সংস্কারের কাজে দেরির জন্য ক্ষমাও চান। কিন্তু পড়ুয়াদের বক্তব্য, তিন বছর ধরে কাজ চলছে। বারবারই হিন্দু হস্টেল খোলার কথা বলা হলেও তা হয়নি। অন্তত ১ ও ২ নম্বর ব্লকে পড়ুয়াদের থাকতে দেওয়ার দাবি না মানা পর্যন্ত তাঁরা ক্যাম্পাসেই থাকবেন।

Leave A Reply