রবিবার, অক্টোবর ২০

কাশ্মীরের ইতিহাসে কালো দিন, লিখল পাক মিডিয়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো : পাকিস্তানের সরকারের সঙ্গে সুর মিলিয়ে সেদেশের সংবাদ মাধ্যমেও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার নিন্দা করা হয়েছে কঠোর ভাষায়। ভারতকে দোষারোপ করে বলা হয়েছে, তারা আরও একবার কাশ্মীর ইস্যুর সমাধান করতে ব্যর্থ হল। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিল মোদী সরকার।

পাকিস্তানের প্রধান সংবাদপত্রগুলির অন্যতম ‘দি ডন’ লিখেছে, নয়াদিল্লি কাশ্মীর নিয়ে খোলাখুলি অবস্থান নিয়েছে। তারা কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা হরণ করেছে। অন্য একটি হেডিং-এ লেখা হয়েছে, মঙ্গলবার ইমরান পার্লামেন্টে কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন।

অপর সংবাদপত্র ‘এক্সপ্রেস ট্রিবিউন’-এ মন্তব্য করা হয়েছে, ৫ অগাস্ট কাশ্মীরের ইতিহাসে সবচেয়ে কালো দিন। ‘পাকিস্তান টুডে’ সংবাদপত্রে বলা হয়েছে, ভারত আবার কাশ্মীর সমস্যা সমাধান করতে ব্যর্থ হল। ‘পাকিস্তান অবজারভার’ লিখেছে, ভারত ‘অধিকৃত কাশ্মীরের’ বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিয়েছে। ‘দি নেশন’ লিখেছে, ভারত জোর করে ‘অধিকৃত কাশ্মীরের’ বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিল।

সোমবার রাজ্যসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ৩৭০ ধারার বিলোপ করার প্রস্তাব দেন। একইসঙ্গে জম্মু-কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার বিল পেশ করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তার নিন্দা করে পাকিস্তান সরকার। সেইসঙ্গে জানায়, ভারতের ‘বেআইনি ও একতরফা’ পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ‘সম্ভাব্য সব পদক্ষেপ’ নেবে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপ করার সিদ্ধান্ত ‘বেআইনি’। এর ফলে দুই প্রতিবেশীর সম্পর্ক আরও খারাপ হবে। পাকিস্তানের বিদেশ দফতর থেকে ভারতীয় হাই কমিশনার অজয় বিসারিয়াকে ডেকে জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে কড়া বার্তা দেওয়া হয়।

রাষ্ট্রপুঞ্জ ও আমেরিকা থেকে ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশের কাছেই আবেদন জানানো হয়েছে, আপনাদের এলাকায় শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষা করুন।

Comments are closed.