সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬

পজিটিভ বেশি মনে রাখি, খারাপগুলোও শক্তি জোগায়: আবির

২০০৯ থেকে ২০১৯—-দশ বছরের ‘জার্নি’। কোন কোন মাইলস্টোন ছুঁলেন, তার চেয়ে এই সফরের পথটাই তাঁর কাছে বেশি গুরুত্বের। এই সফরে পজিটিভিগুলো বেশি মনে রাখতে চান, তবে খারাপগুলোও তাঁর কাছে নতুন করে পথ চলার উদ্যম জোগায়, একটা ‘রিয়েলিটি চেক’ দিতে সাহায্য করে অবশ্যই।
তিনি ফেলুদা হয়েছেন, ব্যোমকেশ তো বটেই। এবং ব্যোমকেশ তাঁর অনেক বেশি পছন্দের। ওই চরিত্রের সঙ্গে অনেক বেশি আত্মিক যোগাযোগ তাঁর। এবং এই চরিত্রের ব্যাপারে তিনি অনেক বেশি পজেজিভ। আত্মশ্লাঘা নয়, বিশ্বাস রাখেন আত্মগরিমায়। এই মুহূর্তে ক্যামেরার পেছনে দাঁড়ানোর কোনও বাসনা নেই। সামনে দুটো ছবি রিলিজ করবে, এই মুহূর্তে নিজেকে ব্যস্ত রাখছেন অনেক স্ক্রিপ্ট পড়ার কাজে। সামনের বছর চুটিয়ে কাজ করার ইচ্ছে। সবুজ, লাল, না গেরুয়া কোন রঙের আবির পছন্দ, জানতে চাইলে বলেন তিনি রঙ্গিন থাকতে চান। সকৌতুকে বলেন, “লেট ইট বি মাই ইউএসপি”। ওয়েবের বাড়বাড়ন্ত স্বীকার করে নিয়েও আশা রাখেন বড় পর্দা আপাতত স্বমহিমায় থাকবে। এম বি এ-র জগৎ ছেড়ে অভিনয়ে আসা তাঁর কাছে খুবই সঠিক সিদ্ধান্ত। পুরনো সহকর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞ অকুণ্ঠ সাহায্য পাওয়ার জন্য। গালের কাটা দাগ নিয়ে এক সময়ে আক্ষেপ ছিল। দিদা দুঃখ পেতেন। একদা বান্ধবী বর্তমানে স্ত্রী কিন্তু বলেছিলেন, এটা নিয়ে সমস্যা হবে না। অতএব বউয়ের কথা শুনে চলাই শ্রেয়। আবির চট্টোপাধ্যায় মুখোমুখি হয়েছিলেন ‘দ্য ওয়াল‘-এর মধুরিমা রায়ের

দেখুন ভিডিয়ো

Comments are closed.