Latest News

গাড়ি চালানোর সময় ঘুমে ঢুলে পড়েন? দুর্ঘটনা রুখতে নয়া ডিভাইস আনছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো,পূর্ব বর্ধমান : আপনি কি অফিস থেকে ফেরার সময় গাড়ি চালাতে চালাতে ক্লান্তিতে ঘুমে ঢুলে পড়েন (Sleeping while driving)? পরক্ষণেই দুর্ঘটনার (Accident) আশঙ্কায় ঝটকা খেয়ে জেগে উঠে আবার হাল ধরেন স্টিয়ারিংয়ের? তাহলে আপনার জন্য আছে সুখবর। নয়া প্রযুক্তিতে এবার থেকে আপনার গাড়িতে থাকবে এমন এক ডিভাইস (Device), যেটি আপনাকে নিশ্চিত দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচাবে।

নয়া এই ডিভাইসের নাম ‘নোভাস অ্যাওয়ার।’ এখনও পর্যন্ত শুধুমাত্র সেনাবাহিনীর গাড়িতেই এই ডিভাইস ব্যবহার করা হয়। তবে দুর্ঘটনার সংখ্যা কমাতে এই ডিভাইস ব্যবহারে উদ্যোগী হয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। আপাতত জেলা পুলিশের দুটি বিশেষ গাড়িতে পরীক্ষামূলকভাবে এই ডিভাইস লাগানো হবে বলে জানা গেছে। এই গাড়ি দুটি সাধারণত অন্য রাজ্যে বা দূরে কোথাও তদন্তের প্রয়োজনে নিয়ে যাওয়া হয়।

কীভাবে কাজ করবে এই ডিভাইস? এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন গুরুগ্রামের প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ পঙ্কজ শর্মা। তিনি জানিয়েছেন, মূলত চালকের চোখের পাতার নড়াচড়া লক্ষ্য করেই কাজ করবে এই ডিভাইস। ডিভাইসটি বসাতে হবে এমন এক জায়গায়, যেখান থেকে চালকের চোখের পাতার নড়াচড়া সহজেই দেখা যাবে। ঘুমে চোখ বুজে এলেই চোখের পাতার ভিডিও উঠে যাবে ওই ডিভাইসে। সেই ভিডিও সঙ্গে সঙ্গে পৌঁছে যাবে সার্ভারে। তক্ষুনি ফোন করে সতর্ক করা ধবে চালককে। জিপিএসের মাধ্যমে ওই গাড়ির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে পুলিশও।

২০২০ সালের ১১ সেপ্টেম্বর ভোরবেলা গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল ড্রাইভার ও নিরাপত্তারক্ষী সহ কলকাতা পুলিশের প্রথম মহিলা ওসি দেবশ্রী চট্টোপাধ্যয়ের। তদন্তে জানা যায়, ভোরবেলা গাড়ি চালাতে চালাতে প্রায় ঘুমিয়ে পড়েছিলেন দেবশ্রীর গাড়ির চালক। তার জেরেই তাঁর গাড়ি সজোরে গিয়ে ধাক্কা মারে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পিছনে। দুর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যুর ঘটনা ভাবিয়ে তুলেছিল গোটা পুলিশ মহলকে। এই ধরনের ঘটনা আটকাতে প্রযুক্তির ব্যবহার করার কথা ভাবা শুরু হয় তখন থেকেই।

৭-৮ মাস আগে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) কল্যাণ সিংহরায় প্রথম এই ডিভাইসের কথা জানান পুলিশ সুপারকে। জানা গেছে, আপাতত একটি বহুজাতিক সংস্থা এই ডিভাইসটি তৈরি করছে। একটি ডিভাইস গাড়িতে বসানোর জন্য খরচ হবে প্রায় ৫০ হাজার টাকা। পরীক্ষামূলকভাবে দুটি গাড়িতে ডিভাইসটির ব্যবহার সফল হলে জেলা পুলিশের ১৭৮ টি চারচাকা গাড়ি ও ১২ টি প্রিজ়ন ভ্যানে এই ডিভাইস লাগানোর বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করা হবে বলে জানা গেছে। রাজ্য তো বটেই, দেশের মধ্যেও গাড়িতে ‘নোভাস অ্যাওয়ার’ নামে এই ডিভাইসের ব্যবহার পূর্ব বর্ধমানেই প্রথমবার হতে চলেছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার কামনাশিস সেন।

চলন্ত ট্রেন থেকে গুটখার পিক ফেলতে গিয়ে পোস্টে ঠুকে গেল মাথা! দিঘার পথে মর্মান্তিক মৃত্যু

You might also like