Latest News

আধার কার্ড না দেখালে ঢোকা যাবে না বিয়েবাড়িতে, পাত্রীপক্ষের আজব দাবিতে নাকাল অতিথিরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিয়ে বাড়িতে খাবারের জায়গায় দাঁড়িয়ে আছেন পাত্রীপক্ষের এক প্রতিনিধি। নিমন্ত্রিত যারা খেতে ঢুকছেন, তাঁদের হাতে রয়েছে আধার কার্ড। সেই আধার কার্ড দেখে নিমন্ত্রিতের তালিকার সঙ্গে মিলিয়ে নিচ্ছেন মেয়ের বাড়ির লোকজন। লিষ্টের নামের সঙ্গে আধার কার্ডের নাম মিলে গেলে তবেই প্রবেশাধিকার মিলছে ভোজসভায়, না হলে খাবার টেবিল অবধি পৌঁছনো তো দূর, দরজা থেকেই হাতজোড় করে পত্রপাঠ ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে অতিথিদের। কিছুদিন আগে অদ্ভুত এই ঘটনার সাক্ষী হয়েছে উত্তরপ্রদেশের আমরোহার এক বিয়েবাড়ি। সোশয়াল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল আজব আপ্যায়নের সেই ভিডিও। (Aadhar Card on wedding)

ঘটনাটি ঘটে গত ২১ সেপ্টেম্বর। আমরোহা জেলার হাসানপুরের একটি বাড়িতে এক সঙ্গে দুই মেয়ের বিয়ে হচ্ছিল। সেখানেই এই অদ্ভুত নিয়ম চালু করা হয় পাত্রীপক্ষের তরফে। মেয়ের বাড়ি থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয় আধার কার্ড ছাড়া কোনওভাবেই অংশ নেওয়া যাবে না বিয়ের ভোজে। কিন্তু যে দেশে অতিথি নারায়ণ, সেখানেই এমন উলটপুরাণ কেন? জানা গেছে, হঠাৎ করেই বিয়েবাড়ির আশেপাশে বেশ কিছু অপরিচিত লোকজনকে ঘুরঘুর করতে দেখেন বাড়ির সদস্যরা। অপরিচিত অনিমন্ত্রিত লোকজনকে এভাবে বিয়ের অনুষ্ঠানে ঢুকে পড়তে দেখে মাথায় হাত পড়ে পাত্রীপক্ষের। এই সব অনাহূত অতিথিরা যদি সবাই পাত পেড়ে খেতে বসে তাহলে তো বেজায় বিপদ। শুধু খাবারে টান পড়বে তাই নয়, এই ঘটনায় পাত্রপক্ষের কাছে মেয়ের বাড়ির লোকজনের নাক কাটা যাওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। তাই বাধ্য হয়েই নিমন্ত্রিতদের আধার কার্ড দেখতে চাওয়া হয়েছে বলে দাবি করেন পাত্রীপক্ষের লোকেরা (Aadhar Card on wedding)।

এই আজব ঘোষণায় বিপাকে পড়েছেন অনেক অতিথিই। নিমন্ত্রণ থাকা সত্ত্বেও আধার কার্ড সঙ্গে না নিয়ে আসার কারণে অভুক্ত অবস্থাতেই ফিরে যেতে বাধ্য হন অনেকে। এই ঘোষণার পর অপমানিত বোধ করেছেন জানিয়ে বিয়েবাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে যান কিছু মানুষ। প্রতিবেশীদের অনেকে আবার ঘোষণা শোনামাত্র একছুটে বাড়ি গিয়ে আধার কার্ড নিয়ে আসেন আর তারপরই অনুমতি মেলে খাবারের।

You might also like