মায়াবতীর বিরুদ্ধে কটূক্তিকে সমর্থন বিজেপি বিধায়কের

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ভারতীয় জনতা পার্টির মোঘল সরাইয়ের বিধায়ক সাধনা সিং কিছুদিন আগেই কটূক্তি করেছিলেন বিএসপি প্রধান মায়াবতীর বিরুদ্ধে। তা নিয়ে নিন্দা হয়েছে নানা মহল থেকে। সোমবার তাঁর সমর্থনে এগিয়ে এলেন  বারিয়া কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। তিনি বললেন, সাধনা সিং ভুল কিছু বলেননি। যে ব্যক্তির আত্মসম্মান নেই, তাকে তো হিজড়াই বলা হয়।
মায়াবতীর সমালোচনা করতে গিয়ে সাধনা সিং ১৯৯৫ সালের একটি ঘটনার কথা উল্লেখ করেন। সেবার সমাজবাদী পার্টির সমর্থকরা মায়াবতী ও তাঁর দলের কয়েকজনকে আক্রমণ করেছিল। তার পরে মায়াবতীর সঙ্গে সপা-র সম্পর্ক খারাপ হয়ে যায়। দীর্ঘদিন দুই দলের মধ্যে কোনও বোঝাপড়া হয়নি। সম্প্রতি দুই দল ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। সেই ঐক্যকে কটাক্ষ করে সাধনা বলেন, ১৯৯৫ সালের সেই ঘটনার পরে মায়াবতী যেভাবে সপা-র সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন, তাতে বোঝা যায়, তিনি হিজড়ার অধম। ক্ষমতার জন্য তিনি নিজের সম্মান বিকিয়ে দিতে রাজি। তাঁর মতো মহিলা নারীত্বের লজ্জা।

সোমবার সাধনা সিংকে সমর্থন করে সুরেন্দ্র সিং বলেন, ১৯৯৫ সালের সেই ঘটনার পরেও মায়াবতী যেভাবে সপা-র সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন, তাতে বোঝা যায়, তাঁর কোনও আত্মসম্মান নেই।

এর আগে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং রিপাবলিকান পার্টি অব ইন্ডিয়ার সভাপতি রামদাস আথওয়ালে মন্তব্য করেন, এইভাবে কাউকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করা ঠিক নয়। বিএসপি নেতা এস সি মিশ্র টুইট করেছেন, আমাদের সঙ্গে এসপি জোট বাঁধার পরে বিজেপি নেতারা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। তাঁরা উত্তরপ্রদেশে এখন একটিও আসন জিততে পারবেন না। দেশের মানুষ বুঝিয়ে দেবেন, তাঁদের প্রকৃত স্থান কোথায়।

সপা-র নেতা অখিলেশ সিং যাদবও সাধনা সিং-এর মন্তব্যের নিন্দা করেছেন।

অখিলেশ বলেন, বিজেপির মোঘলসরাইয়ের বিধায়ক যা বলেছেন, তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। এতে বোঝা যায়, বিজেপি রাজনৈতিক ও নৈতিকভাবে পুরো দেউলিয়া হয়ে গিয়েছে। তারা এখন হতাশ। তাদের বিধায়ক দেশের সব নারীকেই অপমান করেছেন। কংগ্রেসের মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী টুইটারে লিখেছেন, এক মহিলা অপর মহিলা সম্পর্কে এমন কথা বলতে পারেন ভাবা যায় না। কারও সঙ্গে নানা ইস্যুতে মতবিরোধ থাকতেই পারে। ধ্যানধারণারও পার্থক্য থাকতে পারে।  কিন্তু কারও সম্পর্কেই ওই ধরনের মন্তব্য করা উচিত নয়। সমালোচনার মুখে সাধনা সিং বলেছেন, কাউকে ব্যক্তিগতভাবে আঘাত করা তাঁর উদ্দেশ্য ছিল না।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More