শুক্রবার, ডিসেম্বর ৬
TheWall
TheWall

রাস্তায় কারো মৃতদেহ পড়ে নেই মানে এই নয় যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক, বললেন শ্রীনগরের মেয়র

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কেন্দ্রে শাসক বিজেপি কয়েকদিন ধরে বলে আসছে, কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করার পরে কারো মৃত্যু হয়নি। পরিস্থিতি ক্রমশ স্বাভাবিক হয়ে আসছে। কিন্তু এক বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে একথার তীব্র বিরোধিতা করলেন শ্রীনগরের মেয়র জুনেইদ আজিম মাট্টু। তিনি বলেন, রাস্তায় কোনও মৃতদেহ পড়ে নেই মানে এই নয় যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক। তাঁর বক্তব্য, গায়ের জোরে কাশ্মীরে সব ঠান্ডা রাখা হয়েছে। তার মানে এই নয় যে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে।

গত মাসে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে জম্মু ও শ্রীনগরের মেয়রকে প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা দেওয়া হয়। মাট্টু কিন্তু বরাবরই কেন্দ্রের জম্মু-কাশ্মীর পলিসির কড়া সমালোচনা করেছেন। তিনি জম্মু-কাশ্মীর পিপলস কনফারেন্সের সদস্য। যেভাবে কাশ্মীরে মূলস্রোতের রাজনীতিকদের বন্দি করে রাখা হয়েছে মাট্টু তারও সমালোচনা করেছেন। তাঁর কথায়, বছরের পর বছর কাশ্মীরের মূলস্রোতের রাজনীতিকরা সন্ত্রাসবাদীদের হুমকি ও হামলার বিরোধিতা করেছেন। কিন্তু এখন তাঁদেরই বন্দি করে রাখা হয়েছে।

কাশ্মীরে কড়াকড়ির নিন্দা করে মাট্টু বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার আশ্বাস দিয়েছিল, নিষেধাজ্ঞা ধীরে ধীরে শিথিল করে আনা হবে। কিন্তু কাশ্মীরে এখনও অনেক পরিবার আছে যারা প্রিয়জনদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনি।

সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদ করার বিরোধিতা করে মাট্টু বলেন, এর ফলে কাশ্মীরিদের অস্তিত্বের সংকট তৈরি হয়েছে। আমরা সবসময় সন্ত্রাসের মধ্যেই বাস করি। তাতে আমাদের অভ্যাস হয়ে গিয়েছে। কিন্তু সন্ত্রাসের অজুহাতে আমাদের মৌলিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

গত সপ্তাহে এক সাক্ষাৎকারে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর বলেন, কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদীরা যাতে জড়ো হয়ে প্রশাসনের বিরুদ্ধে হামলা না করতে পারে সেজন্যই যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ রাখা দরকার ছিল। আমেরিকা, ইরান সহ বেশ কয়েকটি দেশ জম্মু-কাশ্মীরে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিদেশ দফতরের প্রধান ফেডেরিকা মঘেরিনি আবেদন জানিয়েছেন, ফের ভারত-পাকিস্তান আলোচনা শুরু হোক। কাশ্মীরিদের মৌলিক অধিকারগুলি ফিরিয়ে দেওয়া হোক।

Comments are closed.