বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

রাতভর তিনজনে মিলে কুকুরের উপর চালালো ‘বিকৃত’ অত্যাচার!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ডিমের লোভ দেখিয়ে একটি অবলা কুকুরকে বিকৃত অত্যাচার করল তিনজন! উত্তরপ্রদেশের আলিগড়ে হাথরাস এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে।  জালেসর রোডের কাছে সন্তোষ দেবীর বাড়িতে একটি পমেরেনিয়ান আছে।  বৃহস্পতিবার রাত ১০ টার পর থেকে সন্তোষ দেবী তার দেখা পাচ্ছিলেন না বাড়ির কোথাও, ভেবেছিলেন কাছাকাছি কোথাও হয় চো তাঁর আদরের পোষ্যটি আছে।  কিন্তু ভোর ৬ টা পর্যন্ত তাকে বাড়ির কোথাও খুঁজে না পেয়ে প্রতিবেশী দীনেশের বাড়িতে খোঁজ করতে যান।  সেখানে গিয়ে প্রায় অজ্ঞান অবস্থায় সেই কুকুরটিকে পড়ে থাকতে দেখেন।

অভিযোগ করা হয়েছে দীনেশ কুমার, সতীশ এবং অশোকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।  তিনি বলছেন, ওরা তিনজনই মত্ত অবস্থায় তাঁর পোষ্যটিকে ডিমের লোভ দেখিয়ে তাদের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে সারা রাত ধরে ধর্ষণ করেছে।  কুকুরটিকে এতটাই বেশি অত্যাচার করা হয়েছে যে, তার শরীরের ভিতরেও ঘা এবং ক্ষত রয়েছে।

হাথরাসের থানার অফিসার প্রবেশ রাণা বলছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ (অস্বাভাবিক বিকৃত অপরাধ), ১১ (জন্তুদের সাথে নিষ্ঠুরতা) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চেন্নাইয়েও একই ঘটনা ঘটেছে কদিন আগে।  চারটে কুকুর ছানাকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।  বছর তিরিশের ভাস্কর শহরের মাভারভরায় থাকেন।  সিটিসিভিতে ১৪ই মার্চই দেখা যায় ভাস্করকে কুকুর ছানাদের সাথে নিষ্ঠুর অত্যাচার চালিয়ে নিজের পাশবিক যৌনতা প্রকাশ করতে।  সাই বিগনেশ পশু অধিকার নিয়ে কাজ করেন, তিনি পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন ২৭ শে মার্চ।  সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেফতার করা হয় ভাস্করকে।

এর আগে ২০১৮ তে কলকাতাতেই লেকটাউনে রাস্তার একটি কুকুরকে ঘরে নিয়ে গিয়ে বিকৃতকাম এক ব্যাক্তি অত্যাচার চালায়।  তাকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।  ২০১৮ তেই নাইজেরিয়ার উগো গ্রামে একটি গর্ভবতী ছাগলকে ধর্ষণ করে এক ২০ বছরের যুবক। বিহারেও মদ্যপের হাতে ধর্ষণের শিকার হয় এক গর্ভবতী ছাগল। আবার গত বছর জুলাই মাসে হারিয়ানায় এক গর্ভবতী ছাগলকে গণধর্ষণের অভিযোগ ওঠে।  পরে তদন্তে নেমে আট জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সব মিলিয়ে ‘পাশবিক’ আর ‘মানবিক’ শব্দ দুটোর সংজ্ঞা কোথাও যেন গুলিয়ে যাচ্ছে।  অবলা জীবগুলো বুঝতেও পারছে না তাদের অপরাধটা কী!

Comments are closed.