মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮
TheWall
TheWall

৩৩ বার যাবজ্জীবনের সাজা সিরিয়াল রেপিস্টের! ১১ জন মহিলা ও শিশু ধর্ষিত, অসংখ্য কিশোরী বন্দি

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১১ বছরের কিশোরী থেকে ৭১ বছরের বৃদ্ধা—এই ব্যক্তির যৌন লালসা থেকে রেহাই মেলেনি কারও। ছুরি দেখিয়ে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে চলত নারকীয় নির্যাতন। রক্ত, আর্তনাদ, যন্ত্রণা দেখলে তার মুখে ফুটত হাসি। ইংল্যান্ড ও তার আশপাশে গত সাত মাসে অন্তত ১১ জন তরুণী ও শিশু তার তার লাসার শিকার। সংখ্যাটা বেশি বই কম নয়। ব্রিটেনের ‘সিরিয়াল রেপিস্ট’ জোসেফ ম্যাকক্যানকে আদালতে তোলা হলে ৩৩টি যাবজ্জীবনের সাজা শোনান বিচারক।

জোসেফের আসল ঠিকানা কোথায় তার খোঁজ এখনও পায়নি পুলিশ। ডেরা বদলে বদলে একের পর এক অপরাধ করে গেছে সে। এখনও অবধি জোসেফকে ব্রিটেনের সবচেয়ে কুখ্যাত অপরাধীর তকমা দেওয়া হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, দু’টি বছর চোদ্দর মেয়েকে আটকে রেখে তাদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছিল জোসেফ। সঠিক সময় পৌঁছে পুলিশ দুই নাবালিকাকে উদ্ধার করে আর পাকড়াও করা হয় জোসেফকে। গ্রেফতারির পরেও মুখে অনুতাপের সামান্য চিহ্নও ছিল না তার। কঠিন মুখে নৃশংস দুই চোখ যেন ভ্রুকুটি করছিল পুলিশকেই। বিচারক এডিস বলেছেন,  “ধর্ষণ, শ্লীলতাহানি, অপহরণ মিলিয়ে ৩৭টি অপরাধের অভিযোগ রয়েছে জোসেফের বিরুদ্ধে। তা ছাড়াও ড্রাগ পাচার, ডাকাতি-সহ অন্যান্য অপরাধ তো রয়েছেই। সবকিছু বিচার করে ৩৩টি যাবজ্জীবনের সাজা দেওয়া হয়েছে জোসেফকে।”

এক তরুণীকে গাড়িতে আটকে রেখে কন্ডোম কিনছে জোসেফ। সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়া ছবি। সূত্র: মেট্রোপলিটন পুলিশ

আরও পড়ুন: হায়দরাবাদের নারকীয় রাত: টোলপ্লাজায় দাঁড়িয়েছিল ট্রাক, স্কুটার থামালেন তরুণী, ধরা পড়েছে সিসিটিভি ক্যামেরায়

যৌন কেলেঙ্কারির একাধিক অভিযোগ আগেই উঠেছিল জোসেফের বিরুদ্ধে। তবে বারে বারে ঠিকানা বদল করায় তার খোঁজ পায়নি পুলিশ। চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে প্রথমবার ডাকাতির অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। জামিনে ছাড়া পেয়ে ফের কোকেইন ও ড্রাগ পাচারের অভিযোগে ধরা পড়ে জোসেফ। ৩৪ বছরের জোসেফ ম্যাকক্যান এরপর ছাড়া পেয়ে ইংল্যান্ডের ত্রাস হয়ে ওঠে। পুলিশ জানিয়েছে, লন্ডন, গ্রেট ম্যাঞ্চেস্টার, চেশায়ারে একের পর মহিলা, শিশু তার যৌন লালসার শিকার হতে শুরু করে।

গ্রেট ম্যাঞ্চেস্টারের রাস্তায় সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে জোসেফের ছবি। এখান থেকেই ৭১ বছরের এক বৃদ্ধাকে অপহরণ করেছিল সে

নির্যাতিতাদের বয়ান রেকর্ড করে পুলিশ জেনেছে, গত ২১ এপ্রিল বছর একুশের এক তরুণীকে রাস্তা থেকে ছুরি দেখিয়ে তুলে নিয়ে যায় জোসেফ। ওই তরুণী ওয়াটফোর্ডের একটি নাইটক্লাব থেকে ফিরছিলেন। নিজের ডেরায় নিয়ে গিয়ে বেঁধে রেখে রাতভর মেয়েটিকে ধর্ষণ করে সে। পরে রক্তাক্ত তাকে রাস্তার ধারে ফেলে পালিয়ে যায়।

য়াটফোর্ডের একটি হোটেলে দু’রাতের জন্য ঘর বুক করেছিল জোসেফ। পুলিশের ধারণা, এখানেই দুই কিশোরীর উপর নারকীয় নির্যাতন চালায় সে

এরপরের ঘটনা ঘটে চারদিন বাদে। পূর্ব লন্ডনের একটি এলাকা থেকে ২৫ বছরের এক মহিলাকে অপহরণ করে জোসেফ। টানা ১৪ ঘণ্টা ধরে মহিলার উপর যৌন নির্যাতন চালানো হয়েছিল। উদ্ধারের সময় মেয়েটির অবস্থার ছিল আশঙ্কাজনক। এর পরের ঘটনা উত্তর লন্ডনে। একইভাবে ছুরি দেখিয়ে ২১ বছরের এক তরুণীকে তুলে নিয়ে গিয়ে নারকীয় নির্যাতন চালায় জোসেফ।

জোসেফ ‘সেক্স অ্যাডিক্ট’ শুধু নয়, একজন সাইকোপ্যাথ, জানিয়েছে পুলিশ। কিশোর বয়স থেকেই নানা অপরাধমূলক কাজের সঙ্গে সে জড়িত ছিল। কয়েকবার ধরাও পড়ে। ১৯৯৮ সালে চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়েছিল জোসেফ। তখন তার বয়স ছিল ১১ বছর।

সমাজবিরোধী কাজের জন্য কিশোর বয়সেই ধরা পড়েছিল জোসেফ

পুলিশ জানিয়েছে, কখনও নিজের ডেরায় আবার কখনও হোটেলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হত মহিলাদের। গত মে মাসে গ্রেট ম্যাঞ্চেস্টারের বার থেকে একাধিক মহিলাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে জোসেফ। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, শিশুরাও ছাড় পেত না তার যৌন লালসা থেকে। এক মহিলা ও তার ১১ বছরের ছেলে ও ১৭ বছরের মেয়েকে আটকে রেখে লাগাতার ধর্ষণ করে জোসেফ। কোনওরকমে প্রাণ বাঁচিয়ে তারা পুলিশের কাছে অভিযোগ করে। মহিলা তাঁর বয়ানে জানিয়েছিলেন, কিশোরী মেয়েদের ধরে এনে যৌনদাসী বানিয়ে রাখত জোসেফ। অনেক কিশোরীই নগ্ন অবস্থায় জানলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে নিজেদের প্রাণ বাঁচায়।

৭১ বছরের এক বৃদ্ধার উপর নৃশংস নির্যাতন চালিয়েছিল সে। বৃদ্ধার অবস্থা এখন আশঙ্কাজনক। জোসেফের ডেরা থেকে আরও দু’টি কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

Share.

Comments are closed.