Latest News

‘তোমরা সব মরবে, বাচ্চাগুলোও মরবে’, হরিদ্বারের ঘৃণাভাষণে অভিযুক্ত সাধুর অভিশাপ পুলিশকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হরিদ্বারে সাধু সম্মেলনে ঘৃণাভাষণ ঘিরে গত মাসে তোলপাড় পড়ে গিয়েছিল। সাধুদের আস্ফালন, মুসলিমদের সম্পর্কে প্রকাশ্যে বিদ্বেষমূলক মন্তব্য, খুনের হুঁশিয়ারি, এত কিছুর পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নিরাপত্তা—এসব নিয়ে জাতীয় রাজনীতি আন্দোলিত হয়েছিল। ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা, পুলিশে অভিযোগ সব হয়েছে। এবার সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতারি এবং জেরা শুরু করতেই সাধুর অভিশাপের মুখে পড়তে হল উত্তরাখণ্ড পুলিশকে।

ওই সাধু সম্মেলনের অন্যতম হোতা নরসিংহনাদকে সমন পাঠিয়েছিল পুলিশ। তার আগে জিতেন্দ্র নারায়ণ সিং ত্যাগী নামের এক সাধুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। থানায় হাজিরা দিতে এসে পুলিশের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন নরসিংহনাদ। অভিশাপ দেওয়ার সুরে বললেন, “তোমরা সবকটা মরবে! তোমাদের বাড়িতে যত বাচ্চাকাচ্চা আছে তারাও মরবে! সাধুদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা!”

শুধু তাই নয়। ভাইরাল হওয়া ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে এই সাধু পুলিশের কাছে জবাব চাইছেন, কেন জিতেন্দ্র নারায়ণ সিং ত্যাগীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ যত বোঝানোর চেষ্টা করছে, তাঁর বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ দায়ের হয়েছে, তত ক্ষেপে উঠছেন সাধুবাবা। বলছেন, “তোমরা কি ভাবছ ত্যাগী একা? আমি আছি ওঁর সঙ্গে। আমরা আছি!” প্রসঙ্গত এই ত্যাগী ছিলেন ওয়াসিম রিজভি। গতমাসে তিনি ধর্মান্তরিত হয়ে জিতেন্দ্র নারায়ণ সিং ত্যাগী হয়েছেন।

গত মাসে হরিদ্বারে ধর্ম সংসদে  ঘৃণাভাষণের অভিযোগ ওঠে। সেখানে কয়েকজন ধর্মীয় নেতা হিন্দুদের উদ্দেশে বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে হাতে অস্ত্র তুলে নিতে হবে। তাঁরা মুসলিমদের বিরুদ্ধে গণহত্যার ডাক দেন। ওই ধর্ম সংসদের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন প্রবীণ আইনজীবী তথা কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা জানিয়েছেন, তাঁরা ওই মামলা শুনতে রাজি আছেন।

ধর্ম সংসদের কয়েকজন উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে মামলা করেছে পুলিশ। এর  বিরুদ্ধে আবার আগামী ১৬ জানুয়ারি ‘প্রতিকার সভা’-র ডাক দিয়েছেন কয়েকজন সাধু। স্থির হয়েছে হরিদ্বারের ‘বৈরাগী শিবিরে’ হবে ওই সভা। ধর্ম সংসদের অন্যতম আহ্বায়ক স্বামী আনন্দ স্বরূপ বলেন, প্রতিকার সভায় ধর্ম সংসদের চেয়ে বেশি লোকসমাগম হবে। সারা দেশের প্রতিটি আখড়াকে ওই সভায় আহ্বান জানানো হয়েছে।

You might also like