Latest News

বাদ পড়ে বোমা ফাটালেন ঋদ্ধি, ‘আমাকে অবসর নিতে বলেছিলেন দ্রাবিড়’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতীয় দলের দরজা কার্যত বন্ধ হয়ে গেল ঋদ্ধিমান সাহার। তাঁকে আর আগামী দিনের জন্য বিবেচিত করা হবে না, সেই ইঙ্গিত দিয়েছেন নির্বাচকপ্রধান চেতন শর্মা। কারণ ঋদ্ধিকে বাদ দেওয়ার আগে তাঁকে ফোন করেছিলেন চেতন।

সেইসময় ঋদ্ধিকে বলা হয়, ‘‘তোমাকে আর শ্রীলঙ্কা সিরিজের জন্য ভাবা হচ্ছে না। আমরা অন্য কাউকে ট্রাই করব।’’ সেইসময় বাংলার উইকেটরক্ষক বলেছিলেন, ‘‘এটা কি শুধুমাত্র শ্রীলঙ্কা সিরিজের জন্য, নাকি ভবিষ্যতের জন্যও?’’ তখন চেতন পরিষ্কার বলেন, ‘‘আমরা তোমার কথা আর ভাবছি না।’’

শনিবার ভারতীয় দলে ঋদ্ধিমানসহ পূজারা, রাহানে ও ঈশান্তকে বাদ দেওয়া হয়। ঋদ্ধির বদলে নেওয়া হয়েছে ভরতকে। নির্বাচকপ্রধান যদিও বলেছেন, ‘‘ঋদ্ধিমানকে বাদ দেওয়ার পিছনে অন্য কোনও কারণ নেই। কিন্তু ওর বয়সটা অনেক, তরুণদের কথাই সেই কারণে ভাবছি।’’

ঋদ্ধি এদিন সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের বলেছেন, দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের পরই কোচ রাহুল দ্রাবিড় ঘুরিয়ে তাঁকে অবসর ঘোষণার পরামর্শ দেন। বুঝিয়ে দেন, জাতীয় দলের দরজা তাঁর জন্য বন্ধ হতে চলেছে। ঋদ্ধি জানান, ‘‘যেহেতু আমি এতদিন দলের সদস্য ছিলাম তাই এসব কথা বলতে পারিনি। এখন তো আর সমস্যা নেই আমার।’’

ঋদ্ধির হতাশ লাগছে আরও একটি কারণে,  কানপুরে ৬১ রান করার পর বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় নিজে তাঁকে হোয়াটসঅ্যাপ করে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন। বলেছিলেন, ‘‘যতদিন আমি আছি ততদিন তোর কোনও চিন্তা নেই।’’ তারপরেও বাদ কেন, তার উত্তর খুঁজছেন শিলিগুড়ির পাপালি। এদিন ইডেনে দাঁড়িয়ে মিডিয়া প্রতিনিধিদের বলেছেন, ‘‘আমার বয়স কি রাতারাতি বেড়ে গেল নাকি? অদ্ভুত সব যুক্তি।’’

ঋদ্ধি এখনও অবসর নিতে চান না। তিনি রঞ্জি খেলবেন চাপে পড়ে। বলেছেন, ‘‘আমি থামছি না, আমার অবসর অন্য কেউ কেন ঠিক করে দেবে? আমি যতদিন চাইব খেলব। তাই বাংলার হয়ে রঞ্জি খেলতে চাই, যদি সিএবি চায়।’’ তিনি যে ঘরেতেও কোনঠাসা, বেশ ভালই বোঝা যাচ্ছে।

 

You might also like