Latest News

স্বামীর থেকে ‘মুক্তি’ পেতে চেয়ে প্রেমিকের সঙ্গে মিলে খুন! দিল্লিতে মনুয়া-কাণ্ডের ছায়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রেমিকের সঙ্গে মিলে স্বামীকে খুন করার অভিযোগ উঠল বছর চল্লিশের এক মহিলার বিরুদ্ধে (Wife-Lover Killing Husband)। বৃহস্পতিবার দিল্লির দরিয়াগঞ্জ এলাকার এই ঘটনায় রাজ্যের মনুয়া-কাণ্ডের কথা মনে পড়ে যাচ্ছে অনেকের। জিবা কুরেশি নামের ওই মহিলার সঙ্গে ২৯ বছরের দুই যুবক শোয়েব ও বিনীত গোস্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা জিবার স্বামী মইনুদ্দিন কুরেশিকে খুন করেছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মে মাসের ১৭ তারিখে রাত ১০টার দিকে খুন হয়েছিলেন ৪৭ বছর বয়সি মইনুদ্দিন। খালসা স্কুলের গেটের কাছে সে সময়ে প্রস্রাব করছিলেন তিনি। একটি সাদা মোটরসাইকেলে করে আসে দুই দুষ্কৃতী, তারা এসে খুব কাছ থেকে গুলি করে মইনুদ্দিনকে।

খুনের অভিযগ পাওয়া পরে তদন্তে নেমে প্রথমে মোটরসাইকেলটি পরে উদ্ধার করে পুলিশ। জানতে পারে, সেটি মীরাট থেকে চুরি যাওয়া একটি মোটরসাইকেল। এর পরে আরও জিজ্ঞাসাবাদ, তদন্ত করে নিহত মইনুদ্দিনের স্ত্রী জিবার দিকে পুলিশের সন্দেহের তির যায়। একসময় জেরার মুখে অপরাধ শিকার করে সে।

সেন্ট্রাল দিল্লি পুলিশের ডিসিপি শ্বেতা চৌহান জানান, জিবা বয়ান দিয়েছে, তার দুই ছেলে এক মেয়ে আছে। স্বামী মইনুদ্দিনের রিয়েল এস্টেটের ব্যবসা। সব মিলিয়ে বাইরে থেকে দেখে সুখী পরিবার বলে মনে হলেও, জিবা খুশি ছিল না দাম্পত্যে। সে মইনুদ্দিনকে ছেড়ে অন্য কাউকে বিয়ে করতে চাইত। বছর দুয়েক আগে ২৯ বছরের এক যুবক শোয়েবের সঙ্গে ফেসবুক মারফত পরিচয় হয় তার। কথা বলা, দেখা করা, বন্ধুত্ব থেকে প্রেমে গড়ায় সম্পর্ক।

এর পরেই জিবা শোয়েবকে প্রস্তাব দেয়, মইনুদ্দিনকে খুন করে তাকে যেন বিয়ে করে শোয়েব। পাঁচ মাস ধরে খুনের ছক কষে তারা। বিনীত গোস্বামী নামের এক সুপারি কিলারকেও ভাড়া করে। ৬ লক্ষ টাকায় রফা হয়। এদিকে জিবা সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তাদের দিতে থাকে।

এই পাঁচ মাসে আরও কয়েক বার খুনের চেষ্টা করেছিল তারা। কোনও না কোনও কারণে সফল হয়নি। কিন্তু জিবা ক্রমেই অধৈর্য হয়ে পড়ছিল, মইনুদ্দিনের থেকে ‘মুক্তি’ পাওয়ার জন্য, শোয়েবকে বিয়ে করার জন্য। এর পরেই নতুন করে ছক সাজায় শোয়েব। সে এবং বিনীত মীরাট থেকে একটি বাইক চুরি করে। ১৭ মে রাতে মইনুদ্দিনকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জে গুলি করে মারে তারা।

তবে এত কাণ্ড করেও শেষ রক্ষা হল না জিবা-শোয়েবেপ প্রেমের। ধরা পড়ে গেল সবাই।

পুলিশ তদন্তে জানতে পেরেছে, চার বছর আগে বিয়ে হয় শোয়েবের। তার একটি ছেলেও আছে। এর আগেও আরও খান তিনেক ক্রিমিনাল কেস রয়েছে তার বিরুদ্ধে। গ্রেফতার হওয়ার পরে তার কাছ থেকে একটি দেশি পিস্তল ও ৩ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ দুপুর থেকেই ৩ দিন বন্ধ ব্যান্ডেল স্টেশন, বাতিল বহু ট্রেন, যাত্রী দুর্ভোগের আশঙ্কা

You might also like