Latest News

দিল্লিতে সিসোদিয়ার বাড়িতে সিবিআই হানায় পাঞ্জাবে আপ সরকারের ঘুম ছুটেছে কেন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়ার (Manish Sisodia) বাড়ি-সহ ১৩ জায়গায় সকাল থেকে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে সিবিআই (CBI)। দিল্লির আম আদমি পার্টির (AAP) সরকারের আবগারী নীতি ঘিরে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্তে এই অভিযান। অভিযোগ, নয়া আবগারী নীতি এমনভাবে তৈরি করা হয় যে দিল্লির মদ ব্যবসায়ীদের একাংশ তাতে বিরাট আর্থিক সুবিধা পেয়েছে। বাড়তি লাভের কমিশন জমা হয়েছে আপের দলীয় তহবিলে।

মনীশের বাড়িতে সিবিআই হানা দেওয়ার খবরে কেন্দ্রীয় সরকার এবং বিজেপির নিন্দায় সরব হয়েছেন পাঞ্জাবের (Punjab) আপ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী ভগবৎ সিং মান-সহ আপ নেতারা। সকাল থেকে দফায় দফায় টুইটে মনীশকে নির্দোষ দাবি করে তাঁর পাশে থাকার বার্তা দিচ্ছেন আপ নেতারা। কিন্তু সূত্রের খবর, তলে তলে মুখ্যমন্ত্রী মান, আবগারী মন্ত্রী এবং বিভাগীয় অফিসারদের ঘুম ছুটেছে মনীশের বাড়ি সিবিআই হানার খবরে।

কারণ, দিল্লি সরকারের আবগারী নীতিই হুবহু টুকে সদ্য চালু করা হয়েছে পাঞ্জাবের নতুন মদ-বিক্রি নীতি। আর তা চালু হতেই তুমুল রাজনৈতিক বিতর্ক শুরু হয়েছে। বিরোধীদের বক্তব্য, আপ ক্ষমতায় আসার জন্য গুচ্ছ সুবিধার কথা ঘোষণা করে। এখন সংসার সামলাতে না পেরে মদ বিক্রি থেকে বিপুল রোজগারের চেষ্টা চালাচ্ছে। অথচ, ভোটের প্রচারে তারা মদ-সহ সব ধরনের নেশাবস্তুর বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর কথা বলেছিল। মাদক পাঞ্জাবের একটি বড় সামাজিক সমস্যার কারণ।

পাঞ্জাব সরকারের মদ নীতির বিরুদ্ধে পাঞ্জাব-হরিয়ানা হাইকোর্টে জনস্বার্থের মামলাও হয়েছে। মদ ব্যবসায়ীদেরই একটি সংগঠন এই মামলা করে বলেছে, নতুন মদ নীতি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যে প্রতিটি সার্কেল থেকে মাসে ৩০ কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিয়েছে সরকার। এতদিন তা তিন কোটি টাকা ছিল। সরকার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা বৃদ্ধি করায় বিপুল পরিমান মদ বিক্রি জরুরি হয়ে পড়েছে। কিন্তু বেশিরভাগ মদ ব্যবসায়ীর একসঙ্গে বিপুল পরিমাণ মদ মজুত করার মতো আর্থিক সঙ্গতি নেই। ফলে মদ ব্যবসা চলে গিয়েছে বড় ব্যবসায়ীদের হাতে। বিরোধীদের অভিযোগ, পাঞ্জাবেও আপ মদ থেকে টাকা তোলার ব্যবস্থা করেছে। শুধু তাই নয়, দিল্লির কিছু মদ ব্যবসায়ীকেও পাঞ্জাব সরকার সম্প্রতি লাইসেন্স দিয়েছে।

আপ সরকারের মন্ত্রী ও অফিসারদের আশঙ্কা, দিল্লির মদ নীতি অনুকরণ করার যুক্তিতে হাইকোর্ট পাঞ্জাব সরকারের আবগারী নীতি নিয়েও সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিতে পারে। আপ নেতারা মুখে সিসোদিয়ার বাড়িতে সিবিআই হানার নিন্দা করলেও আবগারি নীতি নিয়ে খুবই চিন্তায় আছেন।

আরও পড়ুন: সলমন রুশদির ওপর হামলা নিয়ে সরব ইমরান, কী বললেন তিনি

You might also like