Latest News

বিজেপির ১৭ বিধায়ক গেলেন কোথায়? বিস্ফোরক অভিযোগ শুভেন্দুর, কটাক্ষ পার্থর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মুখ্যমন্ত্রীকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য করতে চেয়ে সোমবার বিল পেশ হয়েছে বিধানসভায় (Vidhansabha)। এদিন সকালেই বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) বলেছিলেন, ওই বিলের বিরোধিতা করবে বিজেপি। শুধু তাই নয়, ভোটাভুটিও করা হবে। সংখ্যার বিচারে তৃণমূলের ত্রিসীমানায় বিজেপির আসার কথা নয়। বিজেপি তা জেনেই ভোটাভুটিতে গিয়েছিল (BJP MLA)। কিন্তু তারপর যা হল তা শুভেন্দুদের চিন্তার ব্যাপার বলেই মনে করছেন অনেকে।

কী হল?

তার আগে এক নজরে দেখে নেওয়া যাক, বিলের পক্ষে-বিপক্ষে ভোটের ফল কী। এদিন মুখ্যমন্ত্রী উপাচার্য হোন—এর পক্ষে ভোট দিয়েছেন ১৮২ জন। আর বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ৪০ জন।

এই ৪০ নিয়েই গোল বেঁধেছে। শুভেন্দু দাবি করেছেন, তাঁদের ৫৭ জন কক্ষে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু ভোট পড়েছে ৪০টি। তাহলে ১৭ জন গেলেন কোথায়? তাঁরা কি ভোটাভুটির সময়ে ছিলেন না? নাকি তাঁরাও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষে ভোট দিয়ে দিয়েছেন?

শুভেন্দুর দাবি, বিল নিয়ে কক্ষের ভোটেও ছাপ্পা হয়েছে। বিরোধী দলনেতা এও বলেছেন, এই ভোটাভুটি নিয়ে তিনি আদালতে যাবেন।

তৃণমূলও কটাক্ষ করতে ছাড়েনি। পরিষদীয় মন্ত্রী তথা তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) বিরোধী দলনেতার উদ্দেশে বলেছেন, “সকাল থেকে ধর্নায় না বসে, বড় বড় বুলি না দিয়ে নিজেদের বিধায়কদের সামলাক।” পার্থ আরও বলেন, “আমি জানি না ৫৭ কী ভাবে ৪০ হয়ে গেল। তবে আরএকটু ঝাঁকা দিলে ওই চল্লিশটাও আরও নীচে নেমে যাবে।” বিধানসভায় শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেছেন, “কোর্টে চাইলে যেতেই পারেন।”

কয়েকদিন আগেই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, “তৃণমূল যদি দরজা খুলে দেয় তাহলে বাংলা থেকে বিজেপি পার্টিটাই উঠে যাবে।” শুধু তাই নয়, অর্জুন সিং, বাবুল সুপ্রিয়দের মতো বেশ কয়েকজন সাংসদ-বিধায়ক তৃণমূলে যে কোনও দিন যোগ দিতে পারেন বলে রাজনৈতিক মহলের গুঞ্জনও এখনও থিতিয়ে যায়নি। এ হেন পরিস্থিতিতে বিজেপির ১৭ বিধায়কের ভোট ভ্যানিশ হয়ে যাওয়া নিয়ে গেরুয়া শিবিরের উদ্বেগের কারণ রয়েছে বলেই মত অনেকের।

আরও পড়ুন: নবান্নের এক বাবু মাসে ৫০ হাজার টাকার তেল পোড়াচ্ছেন, প্রশ্ন করতেই বললেন, ‘নলেজে নেই’

You might also like