Latest News

অভিষেকের শ্যালিকার সঙ্গে ঠিক কাজ করা হয়নি, আদালতে স্বীকারোক্তি ইডির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শ্যালিকা মেনকা গম্ভীরের (Menka Gambhir) সঙ্গে বিমানবন্দরে যা হয়েছিল তা ঠিক হয়নি বলে আদালতে স্বীকার করল কেন্দ্রীয় এজেন্সি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। মেনকা যে মামলা করেছিলেন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে তাতে বৃহস্পতিবার সকালে ইডিকে তাদের বক্তব্য জানাতে বলা হয়েছিল। সেখানেই ইডির আইনজীবী এসভি রাজু এই স্বীকারোক্তি করেছেন। তবে সেদিন বিমানবন্দরে যা হয়েছিল তাকে আদালত অবমাননা বলা যায় না বলে দাবি করেছে ইডি।

গত ১০ সেপ্টেম্বর ব্যাংকক যাওয়ার বিমান ধরতে কলকাতা বিমানবন্দরে যান মেনকা। একটি নির্দিষ্ট মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি করেছিল ইডি। বোর্ডিংয়ের সময়েই মেনকাকে জানানো হয়, তিনি শহর ছাড়তে পারবেন না। তারপর বিমানবন্দরের একটি ঘরে অভিবাসন দফতরের আধিকারিকরা অভিষেকের শ্যালিকাকে দু’ঘণ্টা আটক করে রাখে বলে অভিযোগ।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের লড়াইয়ে আমিও সামিল হচ্ছি, জানালেন বিচারপতি বিশ্বজিৎ বসু

মেনকা আদালতের কাছ থেকে আগেই রক্ষাকবচ নিয়ে রেখেছিলেন। আদালতের নির্দেশ রয়েছে কয়লা মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে চরম কোনও পদক্ষেপ করতে পারবে না কোনও এজেন্সি। সেই নির্দেশকে হাতিয়ার করেই ইডি ও অভিবাসন দফতরের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করেন মেনকা।

অভিষেকের শ্যালিকার তরফে আদালতে বলা হয়, দু’ঘণ্টা তাঁকে যে ভাবে আটকে রাখা হয়েছিল তাও একধরনের কড়া পদক্ষেপ। এটা আদালত অবমাননার সমান।

ওই ঘটনার পর ইডি দফতরে গিয়ে একদিন হাজিরাও দিয়েছিলেন মেনকা। তাতে আবার সময় বিভ্রাটও ঘটেছিল। প্রথমে মেনকাকে নোটিস দেওয়া হয় রাত সাড়ে ১২টায় সিজিও কমপ্লেক্সে যাওয়ার জন্য। তিনি পৌঁছলে দেখা যায় সিজিও কমপ্লেক্স শুনশান। ইডি অফিসে তালা ঝুলছে। পরে ইডি জানায় নোটিসে টাইপো হয়েছিল। পিএম লিখতে গিয়ে ভুল করে এএম লেখা হয়েছিল নোটিসে।

এদিন শুনানি শেষে রায়দান স্থগিত রেখেছেন হাইকোর্টের বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। শুক্রবার এই মামলার রায় দেওয়া হতে পারে।

You might also like