Latest News

সাগরে ঘনিয়েছে অতি গভীর নিম্নচাপ! তুমুল ঝড়বৃষ্টি হবে বাংলায়, সতর্ক করল হাওয়া অফিস

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত হওয়া নিম্নচাপ (Deep Depression) গভীর থেকে অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় এর ফলে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি (Rain) এবং দমকা হাওয়ার সতর্কতা জারি করল হাওয়া অফিস (Weather Forecast)।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বলছে, আজ এবং আগামীকাল ২০ তারিখ পর্যন্ত গাঙ্গেয় বঙ্গের বেশ কিছু জেলায় মুষলধারে বৃষ্টি হবে। অতিভারী বৃষ্টিতে কার্যত ভেসে যাবে দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুর। এছাড়া, ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া এবং পুরুলিয়ায়। কলকাতা, হাওড়া, হুগলির মতো জেলাতেও ২০ অগস্ট পর্যন্ত হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হবে বলে জানা গেছে।

এছাড়া নিম্নচাপের জেরে বাংলার উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে দমকা হাওয়া বইবে শুক্রবার মধ্যরাত পর্যন্ত। দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে হাওয়ার বেগ থাকবে ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার। উপকূলের অন্যান্য জেলায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে হাওয়া বইতে পারে। শনিবার হাওয়ার বেগ কিছুটা কমবে।

বঙ্গোপসাগরের উপর নিম্নচাপ এই মুহূর্তে অবস্থান করছে দিঘা থেকে ১৪০ কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণ পূর্ব দিকে। ক্যানিং থেকে তার দূরত্ব ১২০ কিলোমিটার দক্ষিণ পূর্বে। নিম্নচাপ ধীরে ধীরে এগোচ্ছে উত্তর পশ্চিম দিকে। শুক্রবার সন্ধে নাগাদ এটি পশ্চিমবঙ্গ-ওড়িশা উপকূলে বালাসোরের কাছে পৌঁছবে। ছত্তীসগড়ের উত্তরে পৌঁছে নিম্নচাপ ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে যাবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

এই নিম্নচাপের বৃষ্টিতে পশ্চিমবঙ্গে ধান এবং পাট চাষের অনুকূল পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে বলে আশ্বাস দিয়েছেন আবহবিদরা। এতে ধান চাষে যেমন সুবিধা ভোগান্তি হতে পারে।

দিঘা, মন্দারমণি, শংকরপুরের মতো উপকূলীয় পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে পর্যটকদের জন্য শনিবার পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। মৎস্যজীবীদের শনিবারের আগে মাছ ধরতে যাওয়ার অনুমতি নেই।

আরও পড়ুন: সইফুদ্দিন, শহিদুলদের হাতে মায়ের কাঠামোপুজো! জন্মাষ্টমীতে সম্প্রীতির নজির বসিরহাটে

You might also like