Latest News

জলপাইগুড়ির হোটেলে দেশি মুরগির নামে কীসের মাংস দেওয়া হচ্ছে! ধৃত চার, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাস্তার ধারের হোটেলগুলোয় মুরগির মাংস বলে যেগুলো দেওয়া হচ্ছে সেগুলো ঠিক কী? সম্প্রতি বন দফতরের প্রশ্নের মুখে পড়ে অপ্রস্তুত জলপাইগুড়ি। দেশি চিকেন বলে চালালেও আসলে যে সেগুলো বিভিন্ন ধরনের পাখি! কিন্তু কী ভাবে জানাজানি হল জানেন?

গরুমারা বন্যপ্রাণী বিভাগের বনকর্মীদের কাছে বেশ কিছুদিন ধরেই খবর আসছিল যে ব্যাধ বা পাখি শিকারিদের আনাগোনা বাড়ছে। শীতের মরসুমে এখন যে পাখির কমতি নেই। যার টানে অবধারিত ভাবে হানা দিচ্ছে ব্যাধেরাও। জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের মণ্ডলঘাট এলাকার তিস্তার চর ও সংলগ্ন ধানী জমিগুলিতে প্রতিদিনই তারা এসে পড়ছে শিলিগুড়ি থেকে।

তারপর এলাকা থেকে একের পর এক লোপাট হয়ে যাচ্ছে নাইট হেরন, স্পটেড ডোপ, ওরিয়েন্টাল টার্টেল ডোপ, ওয়াটার হেন সহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখি। একেকদিনে তারা ৭/৮ ব্যাগ পাখি শিকার করে নিয়ে যাচ্ছে বলে খবর!

দেখুন ভিডিও।

প্রতিদিন ১০০ থেকে ১৫০ পাখি মারা পড়ছে, সেই খবর আসতেই এলাকায় নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশ দেন এডিএফও জন্মেজয় পাল।

এরপর রবিবার বিকেলে যেই খবর আসে ফের পাখি শিকার করতে এসেছে ব্যাধের দল, অমনি বড়সড় টিম নিয়ে বেড়িয়ে পড়েন জন্মেজয়। তিস্তার চরে পৌঁছে তারা তিনটি দলে ভাগ হয়ে ছড়িয়ে যান।

এরপর মণ্ডল ঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই নাবালক-সহ মোট চার পাখি শিকারিকে গ্রেফতার করেন তাঁরা। আরও কয়েকজন অবশ্য পালিয়ে গেছে। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে বেশ কিছু দুর্লভ পাখির মৃতদেহ আর পাখি শিকার করার বিভিন্ন অস্ত্র।

এইসব পাখিদেরই কিছু অসাধু হোটেল মালিকের কাছে বেচে দিত ব্যাধেরা। আর তারা মুরগির মাংস বলে চালাত খাবারের পাতে। তবে বন দফতরের তরফে এদিন ভাল ভাবে সচেতন করা হয়েছে মানুষকে। সেইসঙ্গে বহাল রয়েছে কড়া নজরদারিও।

You might also like