Latest News

দুর্গম কাশ্মীরে দুর্ধর্ষ চিনার কোর! ভারতীয় সেনার অতিমানব তারা, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক বিশেষ সেনা ফরমেশন বা কোর হল, কোর ফিফটিন। কাশ্মীরের এই কোর ফিফটিনকেই ডাকা হয় চিনার কোর বলে। কাশ্মীরের অতিপরিচিত গাছ চিনারের নাম অনুসারেই এই নামকরণ। শুধু দেশের সুরক্ষাই নয়, এই কোরের সদস্যদের অতিমানবিক শক্তি ও চূড়ান্ত দক্ষতা যেন বহু বিপদেআপদে আগলে রেখেছে গোটা কাশ্মীরকে! প্রতি বছরই একাধিক বার সামনে আসে চিনার কোরের অনন্য কার্যকলাপের কথা। দেখে যেন মুগ্ধ হতে হয়, মাথা ঝোঁকাতে হয় শ্রদ্ধায়।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়ে ১৯১৬ সালে তৈরি করা হয় এই চিনার কোর। সে সময়ে মূলত মিশর এবং ফ্রান্সের সঙ্গে যুদ্ধ করার জন্যই এই কোর গঠিত হয়। যুদ্ধের পরে ১৯১৮ সালে এই কোরটির প্রয়োজনীয়তা ফুরিয়ে গেলে, তা ভেঙে দেওয়া হয়। তবে ১৯৪২ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন বার্মাতে সামরিক অভিযানের জন্য দরকার পড়ে এই বিশেষ কোরটির। ফের গড়া হয় কোর ফিফটিন।

১৯৪৭ সালে ভারত ভাগ হওয়ার পরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি নতুন কোর হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে এটি, নাম হয় জম্মু ও কাশ্মীর কোর। ১৯৫৫ সালে কোরটির সদর অফিস তৈরি হয় উধমপুরে, ১৯৭২ সালে তা সরানো হয় শ্রীনগরে।

দেখুন ভিডিও।

দিন কয়েক আগেই একটানা তুষারপাতে ঢেকেছিল কাশ্মীর। তখনই কুপওয়ারার একটি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পরে আটকে পড়েছিলেন মা ও তাঁর সদ্যোজাত। তাঁদের উদ্ধার করে, প্রায় হাঁটু পর্যন্ত বরফে ঢাকা ছ’কিলোমিটার পথ হেঁটে বাড়ি পৌঁছে দেন চিনার কোরের জওয়ানরা। প্রশংসায় ভেসে যায় সোশ্যাল মিডিয়া।

এখানেই শেষ নয়। গত সপ্তাহেই চিনার কোরের জওয়ানরা শোপিয়ানে এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলার জরুরি অবস্থায় তাঁকে স্ট্রেচারে করে তুলে কাঁধে করে বয়ে নিয়ে গিয়ে কয়েক কিলোমিটার পথ নিরাপদে পেরিয়ে ভর্তি করেন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। সুস্থ পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়ে ভাল আছেন তিনি। বরফ ভেঙে স্ট্রেচার নিয়ে চিনার কোরের হাঁটার সেই ভিডিও-ও ভাইরাল হয় অচিরে।

শুধু কি তাই, সামাজিক দায়িত্ব পালনেও খামতি নেই চিনার কোরের। পদস্থ অফিসার এবং কর্তা, আধিকারিকরা প্রায়ই জম্মু ও কাশ্মীরের বিভিন্ন মহল্লায় গিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে দেখা করেন, মিটিং করে তাঁদের বোঝান, সন্ত্রাসের প্রভাব থেকে কী করে মুক্ত রাখা যাবে পরিবার ও সমাজকে, কী করে বিপথে যাওয়া থেকে আগলে রাখতে হবে নতুন প্রজন্মের কিশোর, তরুণদের।

অর্থাৎ, প্রতিকূলতা যাই থাক, সুরক্ষার সঙ্গে কোনও আপস নেই চিনার কোরের। এভাবেই দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে ভারতবর্ষকে গর্বিত করে চলেছে চিনার কোর, লিখে চলেছে শৌর্যের ইতিহাস।

You might also like