Latest News

মা মারা গেছেন, খাটিয়া তোলার জন্য তৈরি ছেলেরা, হঠাৎ নড়ল দেহ! যেন ‘পুনর্জন্ম’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দীর্ঘদিন ধরেই অসুখে ভোগার পর মৃত্যু হয়েছিল মহিলার। তাঁর শেষকৃত্য (funeral) করার তোড়জোড় চলছিল। আত্মীয় প্রতিবেশীরা সকলেই উপস্থিত হয়েছিলেন। এই অবস্থায় আচমকাই বেঁচে উঠলেন (Wakes up) ‘মৃতা’ মহিলা। মৃতদেহকে উঠে বসতে দেখে সকলের তো ভিরমি খাওয়ার জোগাড়!

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের (UP) দেওরিয়ারে। সূত্রের খবর, ওই এলাকার বাসিন্দা টিঙ্কু নামে এক যুবকের মা গত বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। দিন কয়েক আগে তাঁর অবস্থা আরও খারাপ হতে শুরু করে। দেরি না করে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে মাকে হাসপাতালে নিয়ে যান টিঙ্কু।

হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে আত্মীয়-প্রতিবেশীদের ফোন করে মায়ের মৃত্যুর খবর দেন তিনি। টিঙ্কু জানান, হাসপাতালে আসার পথেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর মায়ের। হাত পা ঠান্ডা হয়ে গিয়েছিল, শ্বাস পড়ছিল না।

খবর পেয়ে টিঙ্কুর বাড়িতে হাজির আত্মীয় প্রতিবেশীরা। কান্নার রোল ওঠে। কিন্তু যা হয়ে গেছে তা তো আর পাল্টানো যায় না। তাই নিয়ম মেনেই শেষ স্মৃতি প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন সকলে। শবদেহ শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার খাট তৈরি হয়ে যায়। অন্যান্য আয়োজনও সবই সারা। এর মধ্যেই আবার বাড়িতে ফোন করেন টিঙ্কু। জানান, হঠাৎই উঠে বসেছেন তাঁর মা। দিব্যি বেঁচে রয়েছেন তিনি। তা শুনে বাড়িতে উপস্থিত লোকজনের তো ভিরমি খাওয়ার জোগাড়!

অনুমান করা হচ্ছে, অ্যাম্বুলেন্স এর মধ্যেই মায়ের শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে দেখে টিঙ্কু ধরেই নিয়েছিলেন মৃত্যু হয়েছে তাঁর। তাই হাসপাতালে নিয়ে গেলেও সেখানকার চিকিৎসকরা মহিলাকে পরীক্ষা করে মৃত বলে ঘোষণা করার আগেই টিঙ্কু বাড়িতে ফোন করে মায়ের মৃত্যুর সংবাদ জানিয়ে দিয়েছিলেন বলে মনে করা হচ্ছে। পরে আচমকাই প্রাণের লক্ষণ দেখা যায় ওই মহিলার মধ্যে। তখন তাঁকে অন্য একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানকার চিকিৎসকরা জানান, দিব্যি জীবিত রয়েছেন ওই মহিলা। সামান্য কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়েও দেওয়া হয়। ‘মৃত’ মানুষের এভাবে ফিরে আসার ঘটনাকে পুনর্জন্ম বলেই দাবি মহিলার আত্মীয় পরিজনদের।

কাতারের রাস্তায় বেলজিয়াম-মরক্কো সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি, পুড়ল গাড়ি! পুলিশ ছুড়ছে কাঁদানে গ্যাস

You might also like