Latest News

Ukraine Russia War Bengali: ইউক্রেনের মুক্তিযুদ্ধে লড়ছেন এক বাঙালি, কে তিনি?

দ্য ওয়াল ব্যুরো

ইউক্রেনের বিস্তীর্ণ এলাকা দখল করে নিয়েছে পুতিনের বাহিনী। রুশ বাহিনীর ট্যাঙ্ক, মিশাইল হামলার মুখে প্রাণ দিয়ে রাজধানী কিয়েভ দখলে রাখতে মরিয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইউক্রেনের সেনা। দেশের বাকি অংশেও চলছে তুমুল লড়াই। কিয়েভ থেকে দেড়শো কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ইরপিন এমনই একটি যুদ্ধক্ষেত্র। সেখানেই সামরিক পোশাক পরে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে মাতৃভূমি রক্ষায় রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করছে এক বাঙালি তরুণ (Ukraine Russia War Bengali)। হাবিবুর রহমান ও ইলোনার সন্তান ১৮ বছর চার মাস বয়সি মহম্মদ তাইয়েব (MD Taiyeb)। বাবা-মায়ের শত আপত্তি উপেক্ষা করে যুদ্ধে চলে গিয়েছেন। বাবা-মা’কে শুধু কথা দিয়ে গিয়েছেন, যুদ্ধ জয় করে ফিরে আসার চেষ্টা তিনি অবশ্যই করবেন।

মিলিটারি পোশাকে অস্ত্র হাতে তাইয়েব

Ukraine Russia War Bengali তাইয়েবের শিকড় কোথায়? 

হাবিবুর রহমানের বাড়ি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার অদূরে গাজীপুরের কাপাসিয়ার পাবুর গ্রামে। প্রায় ৩৭ বছর ইউক্রেনের বাসিন্দা তিনি। কিয়েভে কাপড়ের ব্যবসা করেন। ব্যবসা সূত্রে পরিচয় কিয়েভের বাসিন্দা ইউক্রেনিয় ইলোনার সঙ্গে। ইউক্রেনে থেকে গিয়ে হাবিবুর সংসার পাতেন ইলোনার সঙ্গে। হাবিবুর ও ইলোনার বড় ছেলে তাইয়েব।

Russian Tanks: আমেরিকার ক্ষেপণাস্ত্রে ধ্বংস ২৮০ টি রুশ ট্যাঙ্ক

বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমে আজ শিরোনামে তাইয়েব। কিয়েভ থেকে হাবিবুর বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমকে ফোনে জানিয়েছেন, বড় ছেলে তাইয়েব কিয়েভের পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র। রাশিয়ার সঙ্গে ইউক্রেনের সমস্যা শুরু হওয়ার পর থেকেই এ অঞ্চলের অনেক সাধারণ মানুষের যুদ্ধে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তাঁর ছেলেও যেতে চাইছিলেন। কিন্তু তখন আমরা ওঁর কথায় তেমন গুরুত্ব দিইনি।

তাইয়েবের বাবা হাবিবুর রহমান

তিনি আরও বলেছেন, ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোরে ইউক্রেনে হামলা চালায় রুশ বাহিনী। গোলার শব্দে ঘুম ভাঙে তাঁদের। টিফিন খেয়েই তাইয়েব যুদ্ধে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন।

হাবিবুরের কথায়, আমরা চাইনি ছেলে যুদ্ধে যাক। কিন্তু ছেলের জেদের কাছে হার মানতে হয়। ওঁর কথা আর যুক্তি শুনে আমরা আটকাতে পারিনি। হাবিবুর জানান, ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সিদের দেশের জন্য যুদ্ধ করার আইন আছে ইউক্রেনে। ছেলে সেই আইনের কথা বারে বারেই স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন তাঁদের।

হাবিবুর জানিয়েছেন, তাঁর ছেলেকে ইউক্রেন বাহিনী সাদরে গ্রহণ করেছে। ওঁকে ইরপিন এলাকায় পাঠানো হয়েছে। ইরপিন কিয়েভ থেকে দেড়শো কিলোমিটার দূরের একটি প্রদেশ। সেখান থেকে সামরিক পোশাক পরা ছবিও পাঠিয়েছে তাইয়েব।

হাবিব ও তাঁর পরিবার বর্তমানে ইউক্রেনের নাগরিক। হাবিব জানিয়েছেন, দুই সন্তানকেই ছোটবেলা থেকে বাংলা শিখিয়েছেন তিনি। স্ত্রী-পুত্রদের নিয়ে নিজের মাতৃভূমি ঘুরেও গিয়েছেন।

তাইয়েবের মা ইলোনা

কিয়েভ থেকে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, ‘মন ভালো নেই আমাদের। আবার এটাও ভাবি, ছেলেটা বড় একটা কাজের জন্য গেছে। যে দেশে ছেলেটা জন্মাল, বড় হল, সেই মাতৃভূমিকে রক্ষা করার জন্য যুদ্ধ করতে গেছে। এটা বড় মনের পরিচয়। এই ভেবে মনে সাহস জোগাই।’

You might also like