Latest News

রাজ্যে এখনই নতুন ৭ জেলা নয়, তবে দু’টি ভাগ হবে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত ১ অগস্ট রাজ্যে জেলা (District) ভাগ নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল মন্ত্রিসভার বৈঠকে। নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলন করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) জানিয়েছিলেন, রাজ্যে বেশ কয়েকটি জেলাকে ভাগ করা হবে। তৈরি হবে নতুন সাত জেলা। কিন্তু বৃহস্পতিবার নদিয়ার প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন, এখনই অতগুলো নতুন জেলা তৈরি হচ্ছে না।

এদিন রানাঘাটের ছাতিমতলা ময়দানে নদিয়া জেলার প্রশাসনিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই জেলার এক সাংবাদিক মুখ্যমন্ত্রীকে জেলা ভাগের বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করেন। তার জবাবে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এখনই ওই বিষয়টা কার্যকর হবে না।

নদিয়ায় মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক সভায় ধুন্ধুমার, কেন ডাকা হয়নি বিজেপির সাংসদ-বিধায়কদের

মমতার কথায়, ‘অত অফিসার কোথায়? জেলা করতে গেলে তো অফিসার লাগবে। আমাদের হাতে এখন অত অফিসার নেই।’ সেইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী এও বলেন, ‘এখন শুধু দুটো জেলা নতুন করে তৈরি হবে। এক, উত্তর চব্বিশ পরগনা ভেঙে বসিরহাট। দুই, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা ভেঙে সুন্দরবন।

গত অগস্টে ঠিক হয়েছিল, রানাঘাট, বসিরহাট, বহরমপুর-কান্দি, জঙ্গিপুর, সুন্দরবন, ইছামতী ও বিষ্ণুপুর নতুন জেলা তৈরি হবে। অর্থাৎ ভাগ হওয়ার কথা ছিল, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, বাঁকুড়া, উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা। কিন্তু এদিন স্পষ্ট হয়ে গেল, সেই সিদ্ধান্তের পুরোটা এখনই বাস্তবায়িত হচ্ছে না।

এর আগের উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী সুন্দরবন ও সন্দেশখালিকে পৃথক করার কথা বলেছিলেন। মমতা বলেছিলেন, সুন্দরবনের মানুষকে যদি আলিপুরে গিয়ে কাজ করতে হয় আর সন্দেশখালির প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে যদি মানুষকে বারাসত যেতে হয়, তাহলে যাতায়াতেই তো তাঁদের দু’দিন চলে যাবে। কাজ করবে কখন?

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারে আসার পর রাজ্যে একাধিক জেলা ভাগ হয়েছে। যেমন বর্ধমান ভেঙে তৈরি হয়েছিল পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান। দার্জিলিং ভেঙে তৈরি হয়েছিল কালিম্পং, পশ্চিম মেদিনীপুর ভেঙে ঝাড়গ্রাম এবং জলপাইগুড়ি ভেঙে আলিপুরদুয়ার।

You might also like