Latest News

বোনের ক্যান্সার, ওষুধের আবেদন পেয়ে ফোন মোদীর, ‘আপ্লুত’, ‘গর্বিত’ প্রাক্তন সেনাকর্তা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বোন (sister) সুষমা হুডা প্রবীণ সেনাকর্তার স্ত্রী, জটিল ক্যান্সারে (cancer) আক্রান্ত, দিল্লির সেনা হাসপাতালে চিকিত্সাধীন। সুষমা ও তাঁর মতো ট্রিপল-নেগেটিভ মেটাস্ট্যাটিক ব্রেস্ট ক্যান্সারে ভোগা রোগীদের (patients) জীবন বাঁচানোর চিকিত্সার অনুমতি চেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে (narendra modi) এসওএস পাঠিয়েছিলেন প্রাক্তন নর্দার্ন আর্মি কম্যান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডি এস হুডা (ex-army general)। ট্যুইটে মোদীকে আবেদন করেছিলেন,  তিনি যদি ওই রোগের  চিকিত্সায় একটি ওষুধ (drug) বিদেশ থেকে আনানোর অনুমতি দেন।

হুডার পরিচালনাতেই উরি সন্ত্রাসবাদী হামলার পর পাকিস্তানে ২০১৬ সালে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক (surgical strike) চালিয়েছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী।

সোস্যাল মিডিয়ায় সুষমা জানান, স্যাসিটুজুমাব গোভিটেক্যানর (ট্রডেলভি) নামে নতুন একটি ওষুধ প্রথম দফার ট্রিটমেন্ট হিসাবে ক্যান্সার আক্রান্তদের ওপর প্রয়োগ করায় পরীক্ষার পর গত এপ্রিলে অনুমোদন করেছে আমেরিকার  ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্র্রেশন। নভেম্বরে  অনুমোদন দিয়েছে ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সিও।

সুষমা ট্যুইট করেন, বিরাট আশা নিয়ে আপনাকে আবেদন করছি, যদি আপনি দ্রুত অনুমোদন দেন, ভারতের বাজারে ওষুধটি কেনার ব্যবস্থা করেন, তবে আমার মতো অসংখ্য রোগী নতুন জীবন পেতে পারেন যাদের ক্ষেত্রে বাকি সব ধরনের চিকিত্সা হয়ে গিয়েছে। সুষমা প্রধানমন্ত্রীর অফিস ও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক  সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রককে ট্যাগ করেন।

জেনারেল হুডা পিএমও, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংকে ট্যাগ সেটি রিট্যুইট করেন, আমার ব্যক্তিগত স্বার্থ আছে এখানে। সুষমা হুডা আমার বোন,বহু বছর ধরে ক্যান্সারে ভুগছে। আশা ছেড়ে দিয়েছে প্রায়। ব্যক্তিগত অনুভূতি সরিয়ে রেখে বলতে পারি, নতুন ওষুধটি অনুমোদন পেলে ওর মতো বাকিরা হয়তো বেঁচে থাকার লড়াইটা করতে পারবে। কয়েক ঘন্টা বাদেই প্রধানমন্ত্রীর ফোন পান জেনারেল হুডা। তিনি ট্যুইট করে জানান, প্রধানমন্ত্রী আমার সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে উদ্বেগ জানান। বিষয়টি বিবেচনার প্রতিশ্রুতি দেন। ওনার ফোন পেয়ে, ওনার কথা শুনে নিজেকে সম্মানিত, সত্যিই আপ্লুত বোধ করছি। ভারতবাসী হিসাবে গর্ব তো হচ্ছেই, আরও বেশি গর্বিত প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত হস্তক্ষেপের জন্য। জয়  হিন্দ!

 

 

 

 

You might also like