Latest News

ব্যক্তিগত গাড়িতেও ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াত শুরু করার পথে ঢাকা-দিল্লি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলের জন্য চুক্তি হতে যাচ্ছে। ওই চুক্তি হলে দু-দেশের মানুষ ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়েও সীমান্ত পেরোতে পারবেন। বাংলাদেশের বিদেশ প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম শনিবার কলকাতায় বাংলাদেশ দূতাবাসে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এই কথা জানান।

ভারত সরকারের বিশেষ অনুমতিক্রমে শাহরিয়ার এই সফরে ঢাকা থেকে সরাসরি গাড়িতে কলকাতায় এসেছেন। নিজেই ড্রাইভ করেছেন কয়েকশো কিলোমিটার। তাঁর বাবা ও মায়ের পূর্ব পুরুষের ভিটে যথাক্রমে মুর্শিদাবাদের কান্দি এবং বর্ধমান। তিনি সপরিবারে গাড়িতে সীমান্ত পেরিয়ে পূর্ব পুরুষের ভিটেতে কাটিয়ে কলকাতায় আসেন।

বাংলাদেশের জন্মের আগে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে সরাসরি সাধারণ মানুষের যাতায়াতের সুযোগ ছিল। ১৯৬৫-র ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের পর সেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ফের সেই যোগাযোগ স্থাপনের ভাবনা শুরু হয়েছে ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ এবং বাংলাদেশের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে।

দু-দেশের মধ্যে সাধারণ মানুষের যোগাযোগ আরও সহজ করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকার কলকাতায় ভিসা দেওয়ার ব্যবস্থা বেসরকারি সংস্থার হাতে দেওয়ার ভাবনাচিন্তা করছে বলেও জানান তিনি।

এই সফরে বাংলাদেশ সংক্রান্ত দুটি বইয়ের আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেন তিনি। একটি বাংলাদেশের মেজর (অবসরপ্রাপ্ত) এএসএম শামসুল আরেফিন সম্পাদিত বাংলাদেশ অ্যাট ফিফটি। অন্যটি সত্যম রায়চৌধুরি সম্পাদিত বঙ্গবন্ধু ফর ইউ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর।

শাহরিয়ার আলম ভাষণে নাম না করে পাকিস্তানকে নিশানা করে বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তিকে এখনও মদত দিচ্ছে একটি দেশ। তিনি বলেন, বিগত ৫০ বছরে বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে। কিছু সূচকে হয়তো ভারতের থেকেও এগিয়ে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সহযোদ্ধার ভূমিকা পালন করা ভারত অবশ্যই এর জন্য গর্ব করতে পারে।

You might also like