Latest News

দাঙ্গার মামলা একমাস ধরে মুলতবি রাখা অন্যায্য, শুনতে হবে শুক্রবারের মধ্যে, নির্দেশ দিল্লি হাইকোর্টকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : দিল্লি দাঙ্গা নিয়ে মামলাগুলির শুনানি শুরু হওয়ার আগে আরও সময় চেয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। দিলি হাইকোর্টও শুনানি মুলতবি রেখেছিল এক মাস। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট বুধবার বলল, শুক্রবারের মধ্যে দাঙ্গা নিয়ে সব মামলা শুনুক দিল্লি হাইকোর্ট। ওই ধরনের মামলার শুনানি অতদিন মুলতবি রাখা ‘অন্যায্য’।

প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে এদিন বলেন, “আমরা মনে করি, মামলাগুলি শুক্রবারের মধ্যে দিল্লি হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির সামনে লিস্টেড হওয়া উচিত। ন্যায়বিচারের স্বার্থে মামলাগুলি এতদিন ফেলে রাখা উচিত নয়। আমরা হাইকোর্টকে অনুরোধ করছি, এই মামলাগুলি দ্রুত শোনা হোক।”

দিল্লিতে চারদিনের দাঙ্গায় মারা গিয়েছেন ৪৮ জন। আহত হয়েছেন ২০০ জনের বেশি। দাঙ্গায় ক্ষতিগ্রস্তদের তরফে দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন জানানো হয়, যে বিজেপি নেতারা ঘৃণাসূচক ভাষণ দিয়েছেন, দাঙ্গা বাধিয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানানোর জন্য দিল্লি পুলিশকে চার সপ্তাহ সময় দেয় হাইকোর্ট। তখন ক্ষতিগ্রস্তরা সুপ্রিম কোর্টে যান। সেই প্রেক্ষিতেই প্রধান বিচারপতি বলেন, আমরা মনে করি হাইকোর্ট এতদিন মামলা মুলতবি রেখে ঠিক কাজ করেনি।

এদিন কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি হয়তো জানেন না, হাইকোর্টে গুন্ডামি হয়েছিল। জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশি দমনপীড়ন নিয়ে মামলার সময় হাইকোর্টে একদল আইনজীবী ধ্বনি দেন, শেম শেম। সরকার সেই ঘটনার কথা উল্লেখ করেছে।

সরকারের তরফে সুপ্রিম কোর্টে সওয়াল করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। তিনি বলেন, অভিযোগকারীরা ঘৃণাসূচক ভাষণ নিয়ে যা বলছেন, তা সত্যি নয়। মাত্র দু’-তিনটি ভাষণের জন্য দাঙ্গা লেগেছিল, একথা বিশ্বাসযোগ্য নয়।

You might also like