Latest News

ডোমকলে তৃণমূল নেতার উপর হামলায় গ্রেফতার দলের‌ই দুই কর্মী

দ্য ওয়াল ব্যুরো, মুর্শিদাবাদ: ডোমকলের তৃণমূল (TMC) নেতার উপর হামলার ঘটনায় শাসকদলের‌ই দুই কর্মীকে গ্রেফতার (Arrest) করল পুলিশ। রবিবার ডোমকল পুরসভার প্রাক্তন উপ-পুরপ্রধান প্রদীপ চাকী ও তাঁর ছেলে শিলাদিত্য চাকীর উপর হামলা হয়। গুরুতর আহত হয়ে তাঁরা ডোমকল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন (Hospitalised)। পরে ওই তৃণমূল নেতাকে মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। এই ঘটনায় ডোমকলের তৃণমূল বিধায়ক জাফিকুল ইসলামের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলেন প্রদীপবাবু। রাজনৈতিক মহলের মতে, এর ফলে মুর্শিদাবাদ (Murshidabad) জেলায় শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব (TMC Inner Clash) আর‌ও একবার প্রকট হয়ে উঠল। সেই ঘটনাতেই পুলিশ ডোমকলের (Domkol) তৃণমূল কর্মী সিটু শেখ ও মকবুল খানকে গ্রেফতার করেছে।

ধৃতদের মধ্যে মকবুল খান ডোমকলের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল ওয়ার্ড সভাপতির দায়িত্বে আছেন। তিনি বিধায়কের ঘনিষ্ঠ বলেও পরিচিত। গ্রেফতার হ‌ওয়া অপরজন আনোয়ার রফিক ওরফে সিটু শেখ‌ও এলাকার পরিচিত তৃণমূল কর্মী।

রবিবার দুপুরে ডোমকলের প্রাক্তন উপ-পুরপ্রধান প্রদীপ চাকীর উপর হামলার পাশাপাশি তাঁর দোকানেও হামলা চালানো হয়। বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী লোহার রড, পিস্তল ও বাঁশ নিয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ।

এই ঘটনায় গুরুতর আহত হন প্রদীপ চাকী। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে ও ছেলে শিলাদিত্য চাকীকে ডোমকল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে আহত তৃণমূল নেতা বলেন, ‘আমি আজ আক্রান্ত জাফিকুলদের চক্রান্তে। জাফিকুল প্ল্যান করে আমায় খুনের চেষ্টা করেছে।’ উল্লেখ্য, এই জাফিকুল ইসলাম ডোমকলেরই তৃণমূল বিধায়ক। সেই তাঁর বিরুদ্ধেই দলের নেতার উপর হামলার অভিযোগ ওঠায় শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকট হয়ে ওঠে।

এই ঘটনায় পুলিশের কাছে ১১ জনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়। তারমধ্যে দু’জন গ্রেফতার হল। বাকিদের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে ডোমকল থানার পুলিশ।

অযোগ্যদের চাকরির প্রস্তাব, গোটা মন্ত্রিসভার ইস্তফা চেয়ে বিধানসভায় ধুন্ধুমার বিজেপির

You might also like