Latest News

বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়কে বার্তা চন্দ্রিমার, উনি বললেই তৃণমূলের প্রতীক বাতিল হয়ে যাবে না

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অযোগ্যদের চাকরি দেওয়ার প্রশ্নে শুক্রবার রাজ্য মন্ত্রিসভা ও তৃণমূল সম্পর্ক কড়া পর্যবেক্ষণ জানিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, মন্ত্রিসভাকে বলতে হবে যে আমরা অযোগ্যদের পাশে নেই। নইলে গোটা মন্ত্রিসভাকেই মামলায় পার্টি করে দিতে পারেন তিনি। একই প্রসঙ্গে চরম হুঁশিয়ারি দিয়ে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় (Judge Abhijit Ganguly) এও বলেছেন, “আমি কি নির্বাচন কমিশনকে বলব তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীক প্রত্যাহার করতে?”

বিচারপতির এ হেন পর্যবেক্ষণে সরকার যে খুশি নয় তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে এ বার তাঁর উদ্দেশে পরিষ্কার বার্তাও দিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য (Chandrima Bhattacharya)। বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে এদিন চন্দ্রিমা বলেন, “এ ধরনের কথা আগে কখনও বিচারপতিদের মুখে শুনিনি। নির্বাচন কমিশনকে উনি বললেই তৃণমূলের প্রতীক বাতিল হয়ে যাবে এমন নয়। দেশে আইন রয়েছে”।

এখানেই না থেমে চন্দ্রিমা বলেন, “আইনের মধ্যে দিয়ে আমরা চলিনি এটা যদি কারও প্রশ্ন হয়, তা হলে জেনে রাখা ভাল যে আইনের মধ্যে দিয়ে দেশের প্রতিটা নাগরিরকেও চলতে হয়। তার মধ্যে বিচারপতিরাও পড়েন।”

পর্যবেক্ষকদের অনেকের মতে, নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় যে ধরনের পর্যবেক্ষণ জানাচ্ছেন তাতে অতীতের কথা অনেকেরই মনে পড়তে পারে। ইউপিএ জমানায় টুজি স্ক্যাম নিয়ে শুনানির সময়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা এক সময়ে প্রায় ধারাবাহিক ভাবে এমন পর্যবেক্ষণ জানাচ্ছিলেন যে তাতে অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছিল মনমোহন সরকারকে। সে সময়ে সাংবাদিক বৈঠক করে আদালতের এ হেন পর্যবেক্ষণ নিয়ে পাল্টা মত জানাত কংগ্রেস। সাবেক কংগ্রেস দলের কেউ কেউ বলেন যে আসলে রাজনৈতিক ভাবে সরকার দুর্বল হলেই বিচারবিভাগ কখনও কখনও অতিসক্রিয় হয়ে ওঠে। এ ঘটনা বার বার ঘটেছে।

তবে অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় যে ধরনের মন্তব্য সম্প্রতি করেছেন তার নজির কলকাতা হাইকোর্টে বিশেষ নেই বলে অনেকে মনে করেন। এ ব্যাপারে রাজ্যের প্রাক্তন আইন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এদিন আরও বলেন, কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতিদের প্রতি আমি শ্রদ্ধাশীল। জীবনের দীর্ঘ সময় হাইকোর্টে কাটিয়েছি। কখনও কখনও আমার মনে হয়, এই সব মন্তব্য করার পর বিচারপতিরাও হয়তো ভাবেন যে এটা বলা ঠিক হয়নি। অন্যায় হয়েছে।

মূল শত্রু আরএসএস, ভোটের ময়দানে বিজেপি-তৃণমূল, দুই-ই প্রধান প্রতিপক্ষ, বলেছেন সেলিম

You might also like