Latest News

বৌ ছাড়াই মস্ত ধুমধাম করে বিয়ে হল যুবকের, স্বপ্ন পূরণের আনন্দে সামিল গোটা পরিবার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিয়ে করবেন বলে তুমুল বায়না শুরু করেছিলেন যুবক। তবে শরীরের বয়সে তিনি যুবক হলেও, মনের বয়সে তাঁর অনেক কম। মানসিক ভাবে ‘প্রতিবন্ধী’ বলেই তাঁকে চেনেন সকলে। কিন্তু তাই বলে কি শখ-আহ্লাদ থাকতে নেই?

তাই জন্যই তো এক তুতো ভাইয়ের বিয়ে দেখার পর থেকেই আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেছিলেন ওই যুবক। স্বপ্ন দেখছিলেন, এক দিন তাঁরও ধুমধাম করে বিয়ে হবে। ঝকমকে বরের সাজে, ঘোড়া ছুটিয়ে বিয়ের আসরে হাজির হবেন তিনি।

অবশেষে তাঁর ইচ্ছে পূরণ হল। এলাহি বিয়ের আয়োজনও হল। কিন্তু একটি জিনিসই ছিল না তাঁর বিয়েতে। কনে। হ্যাঁ, কনে ছাড়াই বিয়ের সমস্ত আচার পালন করলেন বিয়ে-পাগল যুবক। যাঁর কাণ্ডকারখানা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল।

গুজরাটের হিম্মতনগরের ২৭ বছরের অজয় বারোত তাঁর বাড়ির লোকেদের বহু দিন ধরেই নিজের ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন। বলেছিলেন, জমকালো বিয়ের অনুষ্ঠান হোক তাঁরও। ছেলের সেই ইচ্ছাকে গুরুত্ব দিয়ে তাঁকে কথা দেওয়া হয়, এক দিন তাঁরও ধুমধাম করে বিয়ে দেওয়া হবে। অবশেষে সেই দিন উপস্থিত হয় সম্প্রতি।

তাঁর জন্য কনে পাওয়া না গেলেও বিয়ের আচার-অনুষ্ঠানে এতটুকু ফাঁকি দেওয়া হয়নি। সোনালি রঙের শেরওয়ানি গায়ে চাপিয়ে, গোলাপি রঙের পাগড়ি ও হাতে তরোয়াল নিয়ে, ঘোড়ার পিঠে চড়ে আসরে হাজির হন তিনি। বিয়ের আগের দিন মেহেন্দি, সংগীত, সব কিছুই নিয়ম মেনে পালন করা হয়। বন্ধু, আত্মীয়-স্বজন সকলকেই নিমন্ত্রণ করা হয় বিয়েতে। গুজরাতি গান ও ড্রামের তালে নাচতে নাচতে প্রায় ২০০ জন বরযাত্রী হেঁটে যান বিয়ের মন্ডপ অবধি। ভাড়া করা হয়েছিল বিয়ে বাড়ি। সেখানে ছিল প্রায় ৮০০ জনের খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা।

অজয়ের বাবা বিষ্ণু বারোত বলেন, “আমার ছেলের মানসিক বোধ স্বাভাবিক নয়। ওর চিকিত্‍সা চলছে। খুব ছোটবেলায় মাকে হারিয়েছে ও। অল্প বয়স থেকেই বিয়ের অনুষ্ঠানে যেতে ভালবাসত, আর নিজের বিয়ে কবে হবে জিজ্ঞেস করত। ঠিক করেছিলাম, ভাল ভাবে বিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করব ওর। যাতে ওর মনে হয় স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।”

তবে মানসিক ভাবে অসুস্থ ছেলের সঙ্গে কোনও বাবাই তাঁর মেয়ের বিয়ে দিতে চাইবেন না। তাই কনে ছাড়াই এমন বিয়ের উদ্যোগ নেওয়া হয়। অজয় ক’দিন বাঁচবেন, তা নিয়েও আশঙ্কা রয়েছে পরিবারের। প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণে জীবনে অনেক আনন্দ থেকেই বঞ্চিত হয়েছে অজয়। তাই তার বিয়ের ইচ্ছা পূরণ করতে লেগে পড়ে পরিবারের সকলে। 

অজয় জানিয়েছে, বৌ নেই তো কী হয়েছে? সে নিজের বিয়েতে খুব মজা করেছে। ঠিক যেমনটা তার স্বপ্ন ছিল।

You might also like