Latest News

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এবার পৃথক বৈঠক হবে না, দিল্লি যাওয়ার সময়ে জানালেন মমতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জি-২০ রাষ্ট্রগোষ্ঠীতে ভারত এ বছর নেতৃত্ব দেবে। সেই উপলক্ষে সোমবার বিকেলে রাষ্ট্রপতি ভবনে সব রাজনৈতিক দলের সভাপতিকে বৈঠকে ডেকেছে সংসদ বিষয়ক মন্ত্রক। প্রধানমন্ত্রী (Prime Minister) নরেন্দ্র মোদীও সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। ওই বৈঠকে যোগ দিতে এদিন দুপুর সাড়ে ১২ টা নাগাদ দিল্লি রওনা হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

তবে মুখ্যমন্ত্রী এদিন কলকাতা বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পরিষ্কার ভাবেই জানিয়েছেন, এবারের সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর সম্ভবত আলাদা করে কোনও বৈঠক হবে না। বিকেলে জি-২০ সংক্রান্ত বৈঠকের পর মঙ্গলবার সকালে তিনি আজমেঢ় শরিফে যাবেন। সেখান থেকে কাছেই পুস্করেও যাবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বার কেন আলাদা বৈঠক হবে না মুখ্যমন্ত্রীর?
জবাবে নবান্নের শীর্ষ এক আমলা সোমবার বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাদা বৈঠক করার মতো কোনও অ্যাজেন্ডা এই মুহূর্তে নেই। রাজ্যের আর্থিক পাওনাগণ্ডার ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী তাঁর শেষ দিল্লি সফরেই প্রধানমন্ত্রীকে বিস্তারিত জানিয়েছিলেন। তার পর কিছু প্রকল্প খাতে বরাদ্দ আসতে শুরু করেছে। কেন্দ্রীয় রাজ্যের অংশ বাবদ পাওনা টাকার কিছুটাও পাওয়া গিয়েছে। একশ দিনের কাজ প্রকল্পে বকেয়া পাওনার ব্যাপারে রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার দিল্লিতে গিয়ে বৈঠক করে এসেছেন। ফলে আলাদা করে এখনই কিছু বলার নেই।

কিন্তু হঠাৎ কেন আজমেঢ়-পুষ্কর যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী?
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, আমি যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম তখন আজমেঢ় থেকে পুষ্কর পর্যন্ত রেলপথ প্রকল্পে অনুমোদন দিয়েছিলাম। তখন রেলের অনেক অফিসার আমাকে বলেছিলেন, এটা সাম্প্রদায়িক ব্যাপার হয়ে যাচ্ছে না। আমি বলি, এখানে সাম্প্রদায়িক কী রয়েছে? সব সম্প্রদায়ের মানুষই এই দুই পবিত্রস্থানে যান। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আজমেঢ়-পুষ্কর রেললাইন ছিল আমার স্বপ্নের প্রকল্প। ওঁরা তখন অনেক করে যেতে বলেছিলেন, সেই সময়ে যেতে পারিনি। এখন যাচ্ছি।

যাত্রায় বেরচ্ছেন এবার হেমন্ত, ঝাড়খণ্ডে ভোট এগনোর জল্পনা

You might also like