Latest News

বিদ্যুৎচালিত গাড়িতে চার্জ দেওয়ার জন্য টাটা পাওয়ারের সঙ্গে আলোচনা টেসলার

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ভারতে ব্যবসা করতে চায় বিদ্যুৎচালিত গাড়ি নির্মাতা সংস্থা টেসলা। কিন্তু এদেশে গাড়ির ব্যাটারি চার্জ করার জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা নেই। দেশ জুড়ে যাতে গাড়ির ব্যাটারিতে চার্জ দেওয়ার পরিকাঠামো তৈরি করা যায়, সেজন্য টাটা পাওয়ারের সঙ্গে কথা বলছে শিল্পপতি ইলোন মাস্কের টেসলা কোম্পানি। এই সংবাদ জানার পরেই টাটা পাওয়ারের শেয়ারের দাম বেড়েছে ৫.৫ শতাংশ।

চলতি বছরের শেষের দিকে ভারতে শো-রুম খুলবে টেসলা। প্রথমে তারা বিদেশ থেকে মডেল থ্রি সেডান গাড়ি আমদানি করে এদেশে বিক্রি করবে। একটি সূত্রে খবর, কর্নাটকে বিদ্যুৎচালিত গাড়ি তৈরির কারখানা খুলবে টেসলা।

গতবছর অক্টোবরে টেসলার সিইও ইলন মাস্ক টুইট করে বলেন, ‘নেক্সট ইয়ার ফর সিওর’। অর্থাৎ তিনি বলতে চেয়েছিলেন, পরের বছর নিশ্চিতভাবেই ভারতে বিনিয়োগ করবেন। টুইটারে মাস্কের একটি ছবিও পোস্ট করা হয়েছিল। তাতে দেখা গিয়েছিল, মাস্কের টি শার্টের বুকে লেখা, ইন্ডিয়া ওয়ান্টস টেসলা। টেসলার ফ্যানদের সাইট টেসমানিয়ান-এ জানানো হয়েছিল, মাস্ক ভারতের পাঁচটি রাজ্যে বিক্রয়কেন্দ্র খুলতে চান। সেই সঙ্গে খুলবেন একটি অফিস, একটি রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট সেন্টার ও একটি কারখানা। টেসলা প্রথমে ভারতের ধনীদের কাছে গাড়ি বিক্রির চেষ্টা করবে।

টেসমানিয়ানের ব্লগে লেখা হয়েছিল, “অনেকের ধারণা, ভারতের বেশিরভাগ মানুষ যেহেতু গরিব, তাই সেখানে টেসলার গাড়ি বিক্রি হবে না। তাঁদের বোঝা উচিত, টেসলা ভারতে সব মানুষের কাছে গাড়ি বিক্রি করতে চায় না। ওই কোম্পানি জনসংখ্যার অপেক্ষাকৃত ছোট একটি অংশের কাছে জনপ্রিয় হতে চায়।”

এর পরে বলা হয়, “ভারতের ১৩০ কোটি মানুষ টেসলার গাড়ি কিনতে পারবেন না। কিন্তু এদেশে সাড়ে আট কোটি মানুষ প্রিমিয়াম গাড়ি কিনতে পারেন।” ব্লগে আরও বলা হয়, ভারতে টেসলার জন্য বিরাট বাজার রয়েছে। এদেশের ধনীতম ব্যক্তিরা অপেক্ষা করছেন কবে টেসলা আসবে।

সম্প্রতি পরিবহণমন্ত্রী নীতিন গড়করি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, বিদেশ থেকে গাড়ির যন্ত্রাংশ আমদানি করে এদেশে অ্যাসেম্বল করতে চায় টেসলা। তার বদলে ওই সংস্থা যদি এদেশেই গাড়ি উৎপাদন করে, আমরা তাদের অনেক সুবিধা দিতে পারব।

পরে গড়করি বলেন, আমরা নিশ্চিত করব যাতে ভারতে টেসলার গাড়ি বানাতে খরচ সবচেয়ে কম হয়। এমনকি চিনের চেয়েও কম দামে টেসলা এদেশে গাড়ি বানাতে পারবে। তারা এদেশে একবার গাড়ি বানানো শুরু করলেই সরকার এই ব্যাপারটি নিশ্চিত করবে।

You might also like