Latest News

মণ্ডপে পাত্রী এলেন নাচতে নাচতে, রাগে চড় পাত্রের, পাল্টা পাত্রীরও, বিয়ে করলেন ভাইকে!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিয়ের মণ্ডপে পাত্র-পাত্রীর পরস্পরকে চড় (slap)! এরপর বিয়ে (wedding) ভেঙে যাওয়াই স্বাভাবিক। শেষ পর্যন্ত পাত্রী (bride) বিয়ে করলেন  এক আত্মীয়কে (cousin)। তামিলনাড়ুর কুড্ডালোরের পানরুতির ঘটনা। সেখানকার এক প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীর (businessman) মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়েছিল। পাত্রী বিউটি সেলুন চালান। ২০ জানুয়ারি পানরুতির এক হলে বিয়ের আসরে পাত্রী পরিবারের লোকজনের সঙ্গে নাচতে নাচতে (dancing) হাজির হন। এটা তাঁর হবু স্বামীর (groom) ভাল লাগেনি।  তিনি সেখানেই পাত্রীর কাছে তাঁর এমন আচরণের কারণ জানতে চান।  এ নিয়ে তর্কাতর্কি হয় দুজনের। আচমকা পাত্রীকে সপাটে চড় মেরে বসেন পাত্র। পাত্রীও চুপ করে চড় হজম করতে নারাজ। তিনিও পাল্টা চড় মারেন পাত্রকে।

তবে তখনই পাত্রীর বাবা ঘটনাস্থলেই সিদ্ধান্ত  নিয়ে ফেলেন, এমন ছেলের হাতে মেয়েকে তুলে দেবেন না, যে তাঁর সামনে তাঁর মেয়েকে চড় মারার সাহস দেখাতে পারে! তিনি পাত্রপক্ষকে ডেকে তাঁদের চলে যেতে বলেন, জানিয়ে দেন, এমন ছেলেকে জামাই করতে পারবেন না।  সেখানেই  তিনি আত্মীয়ের সঙ্গে আলোচনা করে পাত্র স্থির করে ফেলেন,  যে পারিবারিক সূত্রে পাত্রীর ভাই। পাত্রীও সম্মতি দেন। সেদিনই পানরুতির মন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন দুজনে।

এমন ঘটনা প্রায়ই ঘটে। গত বছর মধ্য়প্রদেশের এক মহিলা নিজেই বিয়ে ভেঙে দেন পাত্র মাতাল অবস্থায় বিয়ের আসরে হাজির হওয়ায়।  ৭ নভেম্বর রাজগড় জেলার  ঘটনা। পাত্র তো বটেই, বারাতের অনেক লোকজনই নেশায় চূর। পাত্রের দাঁড়ানোর ক্ষমতাও ছিল না।  পাত্রী মুসকান শেখ সিদ্ধান্ত নেন, এমন  ছেলের সঙ্গে   নিজের জীবন জুড়বেন না। জানিয়ে দেন, তিনি বিয়ে করবেন না।

 

You might also like