Latest News

Swasthya Sathi: স্বাস্থ্যসাথী নিয়ে মামলা হাইকোর্টে, নবান্ন ও স্বাস্থ্য ভবনকে যুক্ত করার নির্দেশ ডিভিশন বেঞ্চের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্বাস্থ্যসাথী (Swasthya Sathi) কার্ড নিয়ে গুচ্ছ গুচ্ছ অভিযোগ রয়েছে। অধিকাংশ অভিযোগ বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। বলা হচ্ছে, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থাকলেও বেসরকারি হাসপাতালগুলি তা নিচ্ছে না। ফলে হয়রান হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। দু’দিন আগে এ নিয়ে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার স্বাস্থ্যসাথী নিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হল কলকাতা হাইকোর্টে।

প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলা দায়ের করেছেন আইনজীবী শ্রীকান্ত দত্ত। আদালত মামলা গ্রহণ করার পাশাপাশি নির্দেশ দিয়েছে, রাজ্য সরকার ও স্বাস্থ্য দফতরকে এই মামলায় যুক্ত করতে। জুন মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এই মামলার শুনানি হবে হাইকোর্টে (Swasthya Sathi)।

পার্থকে রক্ষাকবচ দিল না ডিভিশন বেঞ্চ, হাতে রইল সুপ্রিম কোর্ট

স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে চিকিৎসা করাতে গেলে যে বহু বেসরকারি হাসপাতাল ফিরিয়ে দিচ্ছে তার রিপোর্ট রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও। দু’দিন আগে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, “যদি কেউ রোগী ফেরায় তাহলে এফআইআর দায়ের করতে হবে। প্রয়োজনে ওই হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল হবে।”

তবে হাসপাতালগুলিরও বক্তব্য রয়েছে। একাধিক বেসরকারি হাসপাতালের দাবি, তারা স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগীদের চিকিৎসা করালেও বকেয়া টাকা সরকারের থেকে পাচ্ছে না। তা ছাড়া বিভিন্ন চিকিৎসার প্যাকেজ পিছু সরকার যে মূল্য নির্ধারণ করেছে তাতে খরচ উঠছে না। ফলে তাদের আর্থিক বোঝা বাড়ছে।

এদিন মামলাকারী একাধিক আর্জি জানিয়েছেন আদালতের কাছে। তার মধ্যে অন্যতম হল, প্রতিটা বেসরকারি হাসপাতালের বাইরে স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে হেল্প ডেস্ক খোলা প্রয়োজন। যাতে রোগীর পরিজনরা কোনও অসুবিধার মধ্যে পড়লে সেখানে যোগাযোগ করতে পারেন এবং সুরাহা পান।

এখন দেখার এই মামলার শুনানিতে এই সর্বজনীন স্বাস্থ্য বিমা নিয়ে হাইকোর্ট কী নির্দেশ দেয়।

You might also like