Latest News

জামিনে মুক্ত সুধা ভরদ্বাজ, জেলের বাইরে পা রাখলেন তিন বছর পরে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : তিন বছর বাদে জামিন পেলেন এলগার পরিষদ মামলায় অভিযুক্ত আইনজীবী তথা সমাজকর্মী সুধা ভরদ্বাজ (Sudha Bharadwaj)। বুধবার বিশেষ এনআইএ আদালত তিন মাসের জামিন দেয়। পার্সোনাল বন্ড হিসাবে তাঁকে ৫০ হাজার টাকা জামানত রাখতে হয়। বৃহস্পতিবার তিনি বাইকুলা উইমেনস জেল থেকে মুক্তি পান।

কয়েকটি শর্তে তাঁকে তিন মাসের জামিন দেওয়া হয়েছে। তাঁকে আপাতত মুম্বই কোর্টের আওতায় থাকা অঞ্চলে থাকতে হবে। বিনা অনুমতিতে তিনি তার বাইরে যেতে পারবেন না। মুম্বইতে তিনি কোথায় আছেন, তার ঠিকানা জানাতে হবে আদালত ও এনআইএ-কে। তাঁর ফোন নম্বরও জানাতে হবে। যে আত্মীয়রা তাঁর সঙ্গে থাকবেন, তাঁদের ফোন নম্বরও জানাতে হবে। সুধা আদালতকে এমন তিনজনের নাম জানাবেন যাঁরা রক্তের সম্পর্কে তাঁর আত্মীয়। তাঁদের বাড়ি ও অফিসের ঠিকানাও নির্দিষ্ট প্রমাণ সহ জানাতে হবে।

জামিনে মুক্ত থাকাকালীন সুধা যদি বাসস্থান পরিবর্তন করেন, তাহলে অবিলম্বে এনআইএ এবং আদালতকে জানাতে হবে। তিনি পাসপোর্ট, আধার কার্ড, প্যান কার্ড, রেশন কার্ড, ইলেকট্রিসিটি বিল অথবা ভোটার আইডেন্টিটি কার্ডের মধ্যে যে কোনও দু’টির কপি জমা দেবেন। এরপরে এনআইএ তদন্ত করে দেখবে, তিনি বাসস্থানের যে ঠিকানা দিয়েছেন, তা সঠিক কিনা।

আদালতে প্রতিটি শুনানির সময় সুধাকে উপস্থিত থাকতে হবে। কোর্টের নির্দেশ, তাঁর অনুপস্থিতির জন্য যেন বিচার দীর্ঘায়িত না হয়। ১৫ দিন অন্তর হোয়াটস অ্যাপে ভিডিও কলের মারফৎ তিনি নিকটবর্তী থানাকে নিজের উপস্থিতির কথা জানাতে বাধ্য থাকবেন। সংবাদপত্র, টিভি চ্যানেল অথবা ডিজিটাল মিডিয়ায় তিনি মামলা সম্পর্কে কোনও মন্তব্য করতে পারবেন না। যে ধরনের কাজের জন্য তাঁর বিরুদ্ধে ইউএপিএ-তে মামলা করা হয়েছিল, আগামী দিনে তিনি সেই জাতীয় কোনও কাজে অংশ নিতে পারবেন না।

ভীমা কোরেগাঁও মামলায় অপর কোনও অভিযুক্তের সঙ্গে তিনি যোগযোগ করতে পারবেন না। বিদেশে কাউকে ফোন করতে পারবেন না। তিনি কোনও সাক্ষীকে প্রভাবিত করতে চেষ্টা করবেন না। প্রমাণপত্রও বিকৃত করতে চেষ্টা করবেন না। তিনি পাসপোর্ট জমা দেবেন। কোর্টের নির্দেশে তিনি জেল থেকে মুক্তি পেয়েছেন বটে, কিন্তু এই স্বাধীনতার অপব্যবহার করবেন না।

You might also like