Latest News

Stock : শেয়ার বাজারে ধস, বিনিয়োগকারীরা হারালেন সাড়ে ৬ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বৃহস্পতিবার সেনসেক্সের (Stock) পতন হয় ১৪১৬.৩০ পয়েন্ট বা ২.৬১ শতাংশ। ওই সূচক স্থির হয় ৫২,৭৯২.২৩-এর ঘরে। বিনিয়োগকারীদের (Stock) ক্ষতি হয় ৬ লক্ষ ৭১ হাজার কোটি টাকা। এদিন নিফটি নামে ১৬ হাজারের নীচে। অনেকে ভেবেছিলেন, অর্থনীতির বিকাশ ব্যাহত হতে পারে। ব্যাপক মুদ্রাস্ফীতি (Stock) ও বেকারত্বের জন্যই তাঁরা ওই আশঙ্কা করেন। এর ফলে বিনিয়োগকারীরা অনেকে শেয়ার বেচে ফেলেন। এর ফলেই নামতে থাকে সূচক।

কোটাক সিকিউরিটিজ লিমিটেডের (Stock) ইকুইটি রিসার্চ শাখার প্রধান শ্রীকান্ত চৌহান বলেন, “এশিয়া ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশের শেয়ার সূচক এদিন নেমেছে। বিনিয়োগকারীরা অর্থনীতিতে অচলাবস্থার ভয় পাচ্ছেন। তাঁরা ভাবছেন, আমেরিকার ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সুদের হার বাড়াতে পারে”। পরে তিনি বলেন, “বিদেশী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা যতদিন না আস্থা ফিরে পাচ্ছেন, ততদিন শেয়ার সূচকের পতন ঠেকানো যাবে না।”

সেনসেক্সে নথিভুক্ত ৩০ টি কোম্পানির শেয়ারের মধ্যে যাদের দাম সবচেয়ে কমেছে, তাদের মধ্যে আছে উইপ্রো, এইচসিএল টেকনোলজিস, টিসিএস, টেক মাহিন্দ্রা, টাটা স্টিল, ইন্ডাসইন্ড ব্যাঙ্ক এবং কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক। অন্যদিকে আইটিসি, ডক্টর রেড্ডিস এবং পাওয়ারগ্রিডের শেয়ারের দাম বেড়েছে।

এদিন সাংহাই বাদে এশিয়ার প্রতিটি শেয়ার বাজারে সূচক হয়েছে নিম্নমুখী। তাদের মধ্যে আছে সিওল, হংকং এবং টোকিও। ওই শহরগুলিতে সূচক নেমেছে গড়ে ২.৫৪ শতাংশ। আমেরিকাতেও নেমেছে শেয়ার সূচক। আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম কমেছে ১.২৭ শতাংশ। বুধবার বিদেশী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা ১২৫৪.৬৪ কোটি টাকার শেয়ার বেচে ফেলেছেন।

আরও পড়ুন : Paresh Adhikari: নিজামে এলেন পরেশ, বিমানবন্দরে নেমে সোজা সিবিআইয়ের মুখোমুখি

You might also like