Latest News

গ্রামবাংলা থেকে হারিয়ে যাচ্ছে অষ্টক গান! প্রাণপণ লড়ছেন শিল্পীরা, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আধুনিকতার ছোঁয়ায় গ্রামবাংলা থেকে ক্রমশ হারিয়ে যাচ্ছে ধর্মীয় রীতিনীতি, পুরনো সংস্কৃতি। যার মধ্যে অন্যতম অষ্টক গান। মূলত চৈত্রসংক্রান্তির সময় দল বেঁধে অষ্টক শিল্পীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে অষ্টক গান পরিবেশন করতেন। গৃ্হস্থরা এরপর তাঁদের সাধ্যমত চাল, ডাল, টাকা পয়সা দিয়ে সন্তুষ্ট করতেন।

প্রতিটি দলে বাদক, গায়ক ও নৃত্যদল থাকে। সমবেত কণ্ঠে শিল্পীদের সাথে শিব, পার্বতী, কালী, অসুর, ইত্যাদি চরিত্রে অভিনেতারা মুখোশ ও সাজসজ্জা গ্রহণ করে নৃত্যাভিনয় করতো। ছোট দলগুলোর এই গানের প্রধান বাদ্যযন্ত্র ছিল কাঁসা এবং ঢোল। অনেক সময় সুর ঠিক রাখার জন্য গলায় হারমোনিয়াম ঝুলিয়েও মূল গায়ক নেচে নেচে গাইতেন। কিন্তু বড় দলগুলোতে বাঁশি, ঢোল, হারমোনিয়াম, মন্দিরা ও খোল ব্যবহার করা হত।

এই গানে অষ্ট চরিত্রের সমন্বয় ঘটে বলে এ গানের নাম অষ্টক। এই মতে অষ্ট চরিত্র হলো রাধা, কৃষ্ণ, সুবল, বিশাখা, ললিতা, বৃন্দা, বড়িমাই ও বলরাম। এই চরিত্রগুলোর সাথে শিব অনুপস্থিত। সম্ভবত বৈষ্ণবরা শিবের উদ্দেশ্যে রচিত গানের আদলে, রাধা-কৃষ্ণের লীলা ভিত্তিক এই জাতীয় অষ্টক গান তৈরি করেছিলেন। গ্রামের দিকে যে কোনো ধর্মীয় অনুষ্ঠানেই এই অষ্টক কলাকুশলীদের দেখা মিলত, যা আজ লুপ্তপ্রায়।

দেখুন, কী বলছেন শিল্পীরাা।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ম্লান হয়েছে তার বহর। কিন্তু কলাকুশলীরা এখনও নিজেদের ঐতিহ্য ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন। আর আশা করছেন, সরকারও তাঁদের দিকে খুবই শীঘ্রই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে।

You might also like