Latest News

দিদির মন্ত্রী হুমকি দিচ্ছেন ‘বিজেপি করলে উৎখাত করব’, মোদীর নিশানায় গৌতম দেব

দ্য ওয়াল ব্যুরো, শিলিগুড়ি: প্রচারে বেড়িয়ে চমকে ধমকে সাধারণ মানুষকে প্রভাবিত করার অভিযোগ উঠেছিল ডাবগ্রাম ফুলবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী গৌতম দেবের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার সকালে ঠাকুরনগরে ভোটপ্রচারে গিয়ে গেরুয়া পোশাকধারী এক ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে হুঁশিয়ারি দিতে শোনা গিয়েছিল তাঁকে। শনিবার শিলিগুড়িতে সভা করতে এসে সেই প্রসঙ্গ টেনে ক্ষোভ উগরে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

বললেন, “আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখলাম। বাংলার পর্যটন মন্ত্রী, এখানকার বিদায়ী বিধায়ক মানুষকে ধমকাচ্ছেন। বলছেন বিজেপিকে ভোট দিলে উৎখাত করবে। এই ভাষা, হুমকি আপনারা পছন্দ করেন? আমি প্রধানমন্ত্রী হয়ে কি দেশের কাউকে বলতে পারি যে তোমাকে উপড়ে বাইরে ফেলে দেব? এই অধিকার আমার আছে? গণতন্ত্র মানে আইনের শাসন। আর দিদির মন্ত্রী ক্যামেরার সামনে হুমকি দিচ্ছে। এটাই দিদির ১০ বছরের শাসনের নমুনা। আজ বাংলার মানুষ বিজেপিকে ভোট দিচ্ছে। আর তৃণমূলের লোক তাঁদের বাংলার বাইরে ছুড়ে ফেলে দেবে? এত হিম্মত?”

বৃহস্পতিবার গৌতমবাবুকে বলতে শোনা গিয়েছিল “এখানে আপনারা থাকুন। কিন্তু বিজেপি টিজেপি করা যাবে না। আর যদি আমাদের বিরোধিতা করেন তাহলে এখান থেকে উচ্ছেদ করা হবে। আমি গৌতম দেব, যা বলি তাই করি।’’

এরপরেই ওই ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, ‘‘আমি সন্ন্যাসী মানুষ।’’ তাঁকে থামিয়ে দিয়েই রাজ্যের মন্ত্রী ফের বলে ওঠেন, ‘‘ওইসব সন্ন্যাসী টন্ন্যাসী আমি বুঝি না। আমি নিজেও সন্ন্যাসী। ওইসব সন্ন্যাসী দেখাবেন না। বিজেপি করবেন না।’’

মুহূর্তেই তাঁর সেই হুঁশিয়ারি ভাইরাল হয়ে যায়। আর তার জেরেই শোরগোল পড়ে যায় ডাবগ্রাম ফুলবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রে। নিন্দার ঝড় ওঠে। ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরেও অবশ্য দমে যাননি গৌতম দেব। তাঁর দাবি, তিনি কোনও হুমকি দেননি। তাঁর কথায়, ‘‘ওখানে একটা আশ্রম আছে। সেখানে আরএসএস-বিজেপির কাজকর্ম চলে। ধর্মীয় জায়গায় রাজনীতি করা যাবে না। সেটাই বলেছি। আর ভোট চেয়েছি।’’

গৌতম দেবের সেই হুঁশিয়ারি নিয়ে সঙ্গে সঙ্গেই কমিশনে নালিশ জানায় বিজেপি। আজ শিলিগুড়িতে সভা করতে এসে মোদীও এই ঘটনায় রীতিমতো বিঁধে ফেললেন ডাবগ্রাম ফুলবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী গৌতম দেবকে।

You might also like