Latest News

বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্যার স্বামীর হাতে আক্রান্ত সরকারি আধিকারিক, মালদহে চাঞ্চল্য

দ্য ওয়াল ব্যুরো, মালদহ: বিজেপির পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যের বাড়িতে তদন্তে গিয়ে আক্রান্ত হলেন সরকারি আধিকারিক। রীতিমতো বাঁশ নিয়ে সরকারি আধিকারিককে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। ঘটনায় অভিযুক্ত বিজেপির পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যার স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের মানিকচক ব্লকের মানিকচক অঞ্চলের জোৎপাট্টা গ্রামে।

সরকারি আধিকারিককে মারধরের ঘটনা কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন বিজেপির পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য রেনু মণ্ডল। ঘটনায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে মানিকচক ব্লক প্রশাসন। সরকারি আধিকারিকের ওপর বিজেপির এমন হামলার নিন্দায় সরব হয়েছে কংগ্রেস ও তৃণমূল।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ধৃত ব্যক্তির নাম বরুণ মণ্ডল। সরকারি আধিকারিকের উপর হামলার অভিযোগে বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মানিকচক পঞ্চায়েত সমিতির বিজেপির নির্বাচিত সদস্যা রেনু মণ্ডল। মানিকচক ব্লক প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের ঘরের তদন্ত করতে জোৎপাট্টা গ্রামে অন্যান্য বাড়ির সঙ্গেই এই বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে যান মানিকচক ব্লক প্রশাসনের আধিকারিকরা। তখন বাড়িতেই ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যার স্বামী বরুণ মণ্ডল। ঘরের প্রথম কিস্তির টাকা আগেই পেয়েছেন বিজেপির পঞ্চায়েত সমিতির এই সদস্যা।

সরকারি নিয়ম মেনে দ্বিতীয় কিস্তির টাকা দেওয়ার আগে এই তদন্ত করতে যান মানিকচক ব্লক প্রশাসনের আধিকারিক প্রসেনজিৎ সরকার সহ অন্যান্য আধিকারিকরা। নিয়ম মেনে বাড়ি নির্মাণ না করায় সরকারি আধিকারিকরা জিজ্ঞাসাবাদ করতেই তাঁদের সঙ্গে বাকবিতন্ডা শুরু হয়ে যায় বিজেপি নেত্রী ও তার স্বামীর। তখনই ব্লক প্রশাসনের আধিকারিক প্রসেনজিৎ সরকারের উপর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যার স্বামী বরুণ মন্ডল হামলা করে বলে অভিযোগ।

বাঁশ দিয়ে সরকারি আধিকারিক প্রসেনজিৎ সরকারকে ব্যাপক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান মানিকচক ব্লকের যুগ্ম বিডিও রমেশচন্দ্র মণ্ডল। পৌঁছয় পুলিশও। তড়িঘড়ি আহত সরকারি কর্মীকে উদ্ধার করে মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এরপর অভিযুক্ত পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যার স্বামীকে পুলিশ থানায় নিয়ে আসেন। পরে মানিকচক ব্লক প্রশাসনের তরফে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

সরকারি আধিকারিককে মারধরের কথা স্বীকার করলেও সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে কাটমানি চাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা রেনু মণ্ডল। তিনি জানান, দশ হাজার টাকা কাটমানি হিসেবে দাবি করছিল সরকারি আধিকারিকরা। সেই টাকা না দিলে সরকারি প্রকল্পের দ্বিতীয় কিস্তি পাবেন না বলছিল। এই নিয়ে কথা কাটাকাটির মধ্যে স্বামীর রাগ সহ্য না হওয়ায় মারধর করেছে। তবে তিনিও পাল্টা যুগ্ম বিডিও সহ আধিকারিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করবেন বলে জানিয়েছেন।

সরকারি আধিকারিকের উপর বিজেপি নেত্রী ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের এমন হামলার ঘটনার নিন্দা করেছে তৃণমূল ও কংগ্রেস। তৃণমূল ও বিজেপিকে একযোগে আক্রমণ করে পুরো বিষয়টি নিয়ে উচিত পদক্ষেপের দাবি তুলেছেন মানিকচকের কংগ্রেসের বিদায়ী বিধায়ক মোত্তাকিন আলম।

মানিকচক ব্লকের বিডিও জয় আমেদ বলেন, “ব্লক প্রশাসনের একজন সরকারি আধিকারিক প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘরের তদন্তে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন। ঘটনায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে মানিকচক থানায়। প্রশাসন উপযুক্ত পদক্ষেপ করছে।”

You might also like