Latest News

বিজেপি কর্মীর নির্মীয়মাণ বাড়িতে বিস্ফোরণ, বোমা মজুতের অভিযোগ তৃণমূলের

বসহরি গ্রামের বাসিন্দা বিজেপি কর্মী বাঘাম্বর পালের নির্মীয়মাণ বাড়িতে বুধবার গভীর রাতে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের ফলে বাড়ির কংক্রিটের সিড়ি ও বাড়ির একাংশে ফাটল ধরে। বাড়ির মালিকের দাবি, ডিনামাইট বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বাড়িটি উড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টায় ছিল দুষ্কৃতীরা। তাতে বাড়ির মালিককে বিস্ফোরক মজুদ রাখার অপরাধে ফাঁসানো যাবে।

দ্য ওয়াল ব্যুরো, বীরভূম: বিজেপি কর্মীর নির্মীয়মাণ বাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনায় তুমুল চাঞ্চল্য ছড়াল দুবরাজপুর থানার বসহরি গ্রামে। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি ও ভয় ভীতি প্রদর্শনের জন্য বিস্ফোরক মজুত করা হয়েছিল করছে এবং তাতেই বিস্ফোরণ হয়েছে। যদিও বিজেপির পাল্টা দাবি চক্রান্ত করেই বিজেপি কর্মীদের ফাঁসানোর উদ্দেশ্যে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

বসহরি গ্রামের বাসিন্দা বিজেপি কর্মী বাঘাম্বর পালের নির্মীয়মাণ বাড়িতে বুধবার গভীর রাতে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের ফলে বাড়ির কংক্রিটের সিড়ি ও বাড়ির একাংশে ফাটল ধরে। বাড়ির মালিকের দাবি, ডিনামাইট বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বাড়িটি উড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টায় ছিল দুষ্কৃতীরা। তাতে বাড়ির মালিককে বিস্ফোরক মজুদ রাখার অপরাধে ফাঁসানো যাবে।

এলাকার বাসিন্দারা জানান, গত লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে ওই এলাকায় বিজেপির যথেষ্ট প্রতিপত্তি বেড়েছে। আর তাতেই বিজেপি তৃণমূলের সঙ্গে রাজনৈতিক সংঘাত চরমে ওঠে। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বীরভূম সফরের দিন বিজেপি সমর্থকদের রোড শোতে যাওয়া আটকানোর অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যদিও পুলিশি হস্তক্ষেপে সেদিন কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু তারপর থেকেই এলাকায় রাজনৈতিক উত্তাপের পারদ চড়তে থাকে।

বুধবার রাতে বিস্ফোরণের পর এই দিন সকালে দুবরাজপুর থানার পুলিশ তদন্তে আসে। ওই এলাকা থেকে কিছুটা ইলেকট্রিক তার উদ্ধার হয়। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান ডিনামাইট ওই তারের সঙ্গে সংযোগ করেই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল। বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সহ-সভাপতি মলয় মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘রাজনৈতিক সন্ত্রাস ছড়ানোর চেষ্টা করছে বিজেপি। সেই জন্যই বোমা মজুদ করেছিল।’’

যার বাড়িতে বিস্ফোরণ হয়েছে সেই বাড়ির মালিক বাঘাম্বার পালের দাবি ‘‘বিজেপির বাড়বাড়ন্ত ঠেকাতেই চক্রান্ত করে আমার বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। যাতে আমরা দোষী সাব্যস্ত হই। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত।’’ বিজেপির জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা বলেন, ‘‘বিজেপি সন্ত্রাসের রাজনীতি বিশ্বাস করে না। তারা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। চক্রান্ত করেই বিস্ফোরণ ঘটিয়েই আমাদের কর্মীকে ফাঁসানোর চেষ্টা হয়েছে। আমরা চাই পুলিশ ঘটনার প্রকৃত তদন্ত করে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দিক।’’

You might also like